bangla news

নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী বললেন, শিগগির উধাও হবে করোনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৪-০৭ ৫:৩৭:১১ পিএম
জীবপদার্থবিজ্ঞানী মাইকেল লেভিট, ছবি: সংগৃহীত

জীবপদার্থবিজ্ঞানী মাইকেল লেভিট, ছবি: সংগৃহীত

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয়ে তরতর করে কাঁপছে সবাই! গোটা বিশ্ব স্তব্ধ করে ফেলেছে। চীনকে মৃত্যুপুরী বানিয়েছে। এখন ইউরোপ-আমেরিকারও বেশ কয়েকটি দেশ মৃত্যুপুরী। বাংলাদেশেও বাড়ছে সংক্রমণ। এরইমধ্যে নোবেলজয়ী বিজ্ঞানী মাইকেল লেভিট জানিয়েছেন আশা জাগানিয়া কথা।

সম্প্রতি স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এই বায়োফিজিসিস্ট বলেছেন, খুব শিগগির করোনা ভাইরাস উধাও হবে বিশ্ব থেকে। এর জন্য এখন আতঙ্কটা দূর করা প্রথম প্রয়োজন। তাহলেই আমরা ঠিক হয়ে যাব।

লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি দাবি করেন, বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের যে সংখ্যা দেওয়া হচ্ছে, তা এখনও ঠিক বলা যায় না। তবে পরিসংখ্যান দেখে বোঝা যায়, করোনা ভাইরাসের প্রকোপ কমছে দিন দিন।

লেভিট এও দাবি করেন, মানুষকে ঘরবন্দি করে রেখে কিংবা ভ্যাকসিনের মাধ্যমে করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করার কাজটা বেশি কঠিন। যদিও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে, কিন্তু পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে, দেখা যাচ্ছে ধীরে ধীরে তা কমছে। তবে বেশি আতঙ্কিত হয়ে পড়লে ফল খারাপই হবে।

২০১৩ সালে রসায়নে নোবেলে ভূষিত হয়েছিলেন জীবপদার্থবিজ্ঞানী মাইকেল লেভিট। তিনি অনেক আগেই চীনে এক মহামারি হতে পারে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন। সেসময় এও বলেছিলেন, ওই মহামারির প্রকোপ হতে পারে ভয়াবহ।

তিন মাসের বেশি সময় ধরে বিপর্যয় চালাচ্ছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। ওয়ার্ল্ডোমিটার বলছে, এরইমধ্যে বিশ্বজুড়ে ৭৫ হাজার ৯৫৯ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে ভাইরাসটির সংক্রমণে। একইসঙ্গে মোট আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১৬ লাখ ৫৯ হাজার ৮৫৪ জন। যদিও এরমধ্যে দুই লাখ ৯৩ হাজার ৬১১ জন সুস্থ হয়েছেন।

এখনও এর নির্দিষ্ট কোনো প্রতিষেধক বের করা সম্ভব হয়নি। গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা। এরমধ্যে অনেকে দাবি করেছেন, এই ভাইরাস রোধে খুবই কার্যকর অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে। পরীক্ষা চলছে। আবার অনেকে বলছেন, সংক্রামক রোগ ইনফ্লুয়েঞ্জার ওষুধ কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় কাজে দিচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৭, ২০২০
টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-04-07 17:37:11