ঢাকা, শুক্রবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

ভারত

বাংলানিউজের তপন চক্রবর্তীর পাশে কলকাতার ইন্দো-বাংলা প্রেসক্লাব

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ৯, ২০২৩
বাংলানিউজের তপন চক্রবর্তীর পাশে কলকাতার ইন্দো-বাংলা প্রেসক্লাব

কলকাতা: জনপ্রিয় নিউজপোর্টাল বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম- এর ডেপুটি এডিটর তপন চক্রবর্তী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কলকাতার একটি সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি আছেন। ব্যক্তিগত কাজে কলকাতায় অবস্থান করার সময় তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন।

  তার পাশে দাঁড়িয়েছেন কলকাতার সাংবাদিকরা।

রোববার থেকে কলকাতার ইন্দো বাংলা প্রেস ক্লাবের সদস্যরা দায়িত্ব ভাগ করে দিনরাত হাসপাতালে তপন চক্রবর্তীর পাশে অবস্থান করছেন।

সোমবার ফর্টিস হাসপাতালের চিকিৎসক ড. অভীক কারক জানিয়েছেন, তপন চক্রবর্তী এখন একপ্রকার শঙ্কামুক্ত। তবে ২৪ ঘণ্টা না কাটলে কোনোকিছু সঠিকভাবে বলতে পারবো না।  আগের চেয়ে ভালো আছেন। শরীরে ব্লাড সার্কুলেশন মোটামুটি ঠিকঠাক। ব্লাড প্রেসার অনেকটাই স্বাভাবিক। তবে অক্সিজেন এখনও চলবে।

কলকাতার ইন্দো বাংলা প্রেসক্লাবের সদস্যরা

ড. অভীক কারক, ড. শুভানন রায় ও ড. বাসবেন্দ্র চৌধুরী- এই তিন চিকিৎসকের টিম তপন চক্রবর্তীকে মনিটরিং করছে। চিকিৎসকদের টিম জানিয়েছে, রোববার ওনার শুধু মেজর হার্ট অ্যাটাকই হয়নি, শরীরে অক্সিজেনের মাত্রাও কমে গিয়েছিল। সময় নষ্ট করলে বড় বিপদ ঘটে যেত পারত। এরপরই প্রেসক্লাবের সদস্যদের ভিডিওর মাধ্যমে বোঝান তার হৃৎপিণ্ডের প্রধান দুই ধমনীতে কতটা ব্লকেজ ছিল।

প্রসঙ্গত, প্রেসক্লাবের দাবি ছিল তপন চক্রবর্তীর এনজিওগ্রাফি এবং রিং পরানোর পুরো ভিডিও ধারণ করতে হবে এবং সদস্যদের দেখাতে হবে।

ইন্দো বাংলা প্রেস ক্লাবের সম্পাদক শুভজিৎ পুততুন্ড বলেছেন, যেমনভাবে সুস্থ অবস্থায় দাদা ভারতে এসেছিলেন, তেমন সুস্থভাবেই দেশে ফিরবেন। সেই লক্ষ্যে আমাদের ফুল টিম দায়িত্ব ভাগ করে রোটেশন ওয়াইজ হাসপাতালে আছে।

প্রেসক্লাবে মুখপাত্র দীপক দেবনাথ বলেছেন, দুই দেশের সমন্বয়ে আমাদের ইন্দো বাংলা প্রেস ক্লাব। মুখে বলবো, কাজে দেখাবো না তা কি করে হয়? যে বাংলাদেশি, ভারতে এসে বিপদে পড়বেন, তার পাশেই আমরা থাকব। আর তপন দাদা তো আমাদের সম্মানীত সদস্য। তার জন্য তো আমরা সব দিয়ে দেবো।

বাংলানিউজের ডেপুটি এডিটর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কলকাতার হাসপাতালে

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩২ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৯, ২০২৩
ভিএস/নিউজ ডেস্ক

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad
welcome-ad