ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৮ শাওয়াল ১৪৪৫

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

বাংলানিউজের ডেপুটি এডিটর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কলকাতার হাসপাতালে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ৯, ২০২৩
বাংলানিউজের ডেপুটি এডিটর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কলকাতার হাসপাতালে তপন চক্রবর্তী

কলকাতা: দেশের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজপোর্টাল বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমের ডেপুটি এডিটর তপন চক্রবর্তী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কলকাতার একটি সুপার স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।  

সম্প্রতি ব্যক্তিগত কাজে কলকাতায় সফর করছিলেন তপন চক্রবর্তী।

সোমবার (৯ অক্টোবর) সকালে তার দেশে ফেরার কথা ছিল।  

রোববার (৮ অক্টোবর) রাত থেকে হঠাৎ অসুস্থ বোধ করছিলেন তপন চক্রবর্তী। এর কিছু সময় পরই বমি হয়। রোববার সকালে প্রেসার ও সুগার চেক করেন।  এরপরই কিছুটা সুস্থ বোধ করায় মধ্যমগ্রামে তার আত্মীয়ের বাড়ি যাওয়ার জন্য গাড়ি ভাড়া করেন। সঙ্গে ছিলেন এক আত্মীয়। পথেই অসুস্থ বোধ করায় ওই আত্মীয় ডানলোপ এলাকায় স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান তাকে। হাসপাতাল প্রাথমিকসেবা শেষে চিকিৎসক জানান, তপন চক্রবর্তী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন। ভালো কোনো হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

বাংলানিউজের কলকাতা প্রতিনিধি তথা ইন্দো বাংলা প্রেস ক্লাবের সদস্যকে জানায়। সঙ্গে সঙ্গে ছুটে আসেন কয়েকজন সদস্য।  

কলকাতার ফর্টিস হাসপাতালে নিয়ে আসেন আত্মীয়-স্বজনরা। সেখানেই চিকিৎসকরা তপন চক্রবর্তীর প্রাথমিক পরীক্ষা করে জানান, প্রায় ১২ ঘণ্টা আগে হার্ট অ্যাটাক হয়েছে তার। হৃদপিণ্ডের প্রধান দুটো ভাল্বের মধ্যে একটা শতভাগ ব্লক, একটা মাত্র ১০ শতাংশ কাজ করছে। দেরি না করে শুরু হয় চিকিৎসা। হার্টে দুটো রিং বসানো হয়। চিকিৎসক জানিয়েছেন, এরকম ঘটনায় পায়ের ভেন দিয়ে চিকিৎসা পদ্ধতি চালাতে হয়। কিন্তু, উনার ক্ষেত্রে পজেটিভ সাইন একটাই, আমরা তার হাতের শিরা দিয়ে এনজিওপ্লাস্টি করে রিং বসাতে সক্ষম হয়েছি।  

চিকিৎসকদের জানান, ১২ ঘণ্টা হার্ট রক্ত পায়নি, তাই বর্তমানে ৩০ পার্সেন্ট কাজ করছে। ২৪ ঘণ্টা অবজারভেশনে রাখতে হবে। তবে তিনি আগের থেকে সুস্থ আছেন। সব ঠিক থাকলে সোমবার (৯ অক্টোবর) ক্রিটিক্যাল ইউনিট থেকে জেনারেল বেডে দেওয়া হতে পারে।  

বাংলাদেশ সময়: ০০৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৮, ২০২৩
ভিএস/এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।