ঢাকা, সোমবার, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জানুয়ারি ২০২২, ২০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

‘সংসদ সদস্য পদ চাইলেই কেউ বাদ দিতে পারে না’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৭, ২০২১
‘সংসদ সদস্য পদ চাইলেই কেউ বাদ দিতে পারে না’

ঢাকা: ডা. মুরাদ হাসানের সংসদ সদস্য পদ চাইলেই যে কেউ তাকে বাদ দিতে পারবে না বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, জনগণ তাকে ভোট দিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত করেছে; চাইলেই যে কেউ তাকে বাদ দিতে পারবে না।

মঙ্গলবার (০৭ ডিসেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ডা. মুরাদ হাসান দলীয় সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্য পদ ও জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগেও তার পদ রয়েছে; বিষয়টি কীভাবে দেখছেন জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তিনি জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের জেলা স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক। সে বিষয়ে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগ সিদ্ধান্ত নেবে।

তিনি আরও বলেন, সংবিধানে বলা আছে—কারো যদি নৈতিক স্খলন হয়, কারো কর্মকাণ্ডে ও নৈতিক স্খলনজনিত কারণে প্রধানমন্ত্রী যে কাউকে পদত্যাগ করতে বলতে পারেন। সেটি সংবিধানে বলা আছে। আর দলের বিষয়টি দল বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেবে। যেহেতু তিনি জেলা আওয়ামী লীগের একজন কর্মকর্তা, সেটি জেলা আওয়ামী লীগ সিদ্ধান্ত নেবে। এ মুহূর্তে এর বেশি কিছু বলা সমীচীন হবে না।

সংসদ সদস্য পদ নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সংসদ সদস্য জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন। সংসদ সদস্য পদ তো চাইলেই যে কেউ বাদ দিতে পারবে না। জনগণের ভোটে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত।

তিনি বলেন, ডা. মুরাদ হাসান আমাকে সবসময় সহযোগিতা করেছেন। এজন্য তাকে আমি ধন্যবাদ জানাই। মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে তিনি আমাদের কোনো কাজে বাধা হয়ে দাঁড়াননি। বরং সবসময় সহযোগিতা করেছেন। আমি তার সর্বাঙ্গিক মঙ্গল এবং তিনি যেন ভবিষ্যতে শারীরিকভাবে সুস্থ থাকেন সেই কামনা করি।

আরও পড়ুন: ৩ মাস ধরে মুরাদের অস্বাভাবিক আচরণ: তথ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪১ ঘণ্টা, ডিমেম্বর ০৭, ২০২১
জিসিজি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa