ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৮, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৪ সফর ১৪৪৩

জাতীয়

নিস্তব্ধ বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়ক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৩ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০২১
নিস্তব্ধ বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়ক ছবি: বাংলানিউজ

সিরাজগঞ্জ: ঈদের ছুটি শেষ হতে না হতেই করোনার সংক্রমণ রোধে টানা ১৪ দিনের কঠোর লকডাউনে পড়েছে দেশ। কঠোর বিধি-নিষেধের প্রথম দিনে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কসহ সিরাজগঞ্জের সব রুটেই বিরাজ করছে নিস্তব্ধতা।

 

শুক্রবার (২৩ জুলাই) দুপুরের দিকে উত্তরাঞ্চলের সবচেয়ে ব্যস্ততম বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়কের সয়দাবাদ গোলচত্বর, মুলিবাড়ী, কড্ডা ও নলকা মোড় এলাকা একদম ফাঁকা দেখা যায়। নিস্তব্ধতা বিরাজ করছে এ সব মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ স্টেশন কড্ডার মোড় ও হাটিকুমরুল গোলচত্বরেও।  

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, উত্তরাঞ্চলের প্রবেশদ্বার সিরাজগঞ্জের প্রায় ৯০ কিলোমিটার মহাসড়কের ওপর দিয়ে রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের প্রায় ২৪ জেলার যানবাহন চলাচল করে। এ কারণে রাত-দিন ২৪ ঘণ্টাই ব্যস্ত থাকে মহাসড়কগুলো। বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক দিয়ে প্রতিদিন গড়ে ৩৫ হাজার যানবাহন চলাচল করার কারণে যানজট বা ধীরগতি লেগেই থাকে। ঈদের ছুটির পর শুক্রবার থেকে কঠোর লকডাউনের বিধি-নিষেধের কারণে এ মহাসড়কের চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন লক্ষ্য করা গেছে।  

কড্ডার মোড় এলাকার অটোরিকশা ও অটোটেম্পু মালিক সমিতির সভাপতি ফিরোজ আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, শুক্রবার সকাল থেকে এ মহাসড়ক ফাঁকা রয়েছে। মাঝে মাঝে কিছু ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান চলাচল করলেও কোনো গণপরিবহন চলাচল করতে দেখা যায়নি।  

বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোসাদ্দেক হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, সকাল থেকেই এ মহাসড়কে গণপরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। পণ্যবাহী পরিবহন চলাচলে কোনো বিধি-নিষেধ না থাকলেও শুক্রবার হওয়ায় সেগুলোও ছিল গুটিকয়েক। এ কারণে চিরচেনা রূপে নেই বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম মহাসড়ক। তারপরও মাঠে রয়েছে টহল পুলিশ। কোথাও সরকারি বিধি-নিষেধ অমান্য করে যানবাহন চলাচল করলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫১০ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০২১
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa