ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

গাজীপুরে পোশাক শ্রমিককে হত্যা, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ২১, ২০২৪
গাজীপুরে পোশাক শ্রমিককে হত্যা, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার 

ঢাকা: গাজীপুরের শ্রীপুরে পোশাক শ্রমিককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনার প্রধান আসামি মোফাজ্জলকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-১।  

রোববার (২১ এপ্রিল) ভোরে ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর থানাধীন টেংরিয়া গ্রামের মতিউর রহমানের বসতবাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

হত্যাকাণ্ডের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।  

রোববার বিকেলে র‌্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (অপস্ অফিসার) সহকারী পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুর রহমান বাংলানিউজকে বিষয়টি জানান।  

তিনি জানান, গত ১৮ এপ্রিল রাত ৯টার দিকে গাজীপুরের শ্রীপুর থানাধীন কেওয়া পশ্চিমখণ্ড মাওরাচালা এলাকার শিরিনের (২ নং আসামি) বাড়িতে লতিফ মিয়াকে (৩০) দাওয়াত দিয়ে নিয়ে যায়। সেখানে রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে মোফাজ্জল ও শিরিনসহ আরও অজ্ঞাতনামা ২-৩ জন মিলে মাদক কারবার সংক্রান্ত বিরোধের জেরে পরিকল্পিতভাবে মোফাজ্জলকে বাঁশের লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করে ও তার সহযোগীরাও পেটায়। এতে লতিফ গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিযে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। সংবাদ পেয়ে শ্রীপুর থানা পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করে এবং মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দিন আহম্মেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।  

এ ঘটনায় ১৯ এপ্রিল নিহত লতিফের  বাবা আ. খালেক বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা (নং-২৩/১৬৬) করেন।

র‌্যাব কর্মকর্তা বলেন, মামলার প্রেক্ষিতে ২১ এপ্রিল র‌্যাব-১ ও ১৩ যৌথ অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামি মোফাজ্জলকে ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর থানাধীন টেংরিয়া গ্রামের মো. মতিউর রহমানের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেন।  

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার আসামি হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। গ্রেপ্তার আসামির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ২১, ২০২৪
এসজেএ/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।