ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

‘সন্দেহের’ জেরে দুই সহোদর কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
‘সন্দেহের’ জেরে দুই সহোদর কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা

ফরিদপুর: ফরিদপুরের মধুখালীতে একটি উপাসনালয়ে আগুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে নির্মাণশ্রমিক দুই সহোদর কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশসহ আহত হয়েছেন আরও অন্তত সাতজন।

 

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) রাতে উপজেলার ডুমাইন ইউনিয়নের পঞ্চপল্লীতে এ ঘটনা ঘটে।  

আহতদের উদ্ধার করে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হত্যাকাণ্ডের শিকার দুই ভাই হলেন- জেলার মধুখালী উপজেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের ঘোপেরঘাট গ্রামের শাহজাহান খানের ছেলে আশরাফুল খান (১৭) ও তার ভাই আশাদুল খান (১৫)।

তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম-পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি।  

জানা গেছে, পঞ্চপল্লী গ্রামে একটি মন্দিরে আগুন দেওয়ার খবরে ঘটনার সূত্রপাত হয়। কতিপয় লোকের ‘সন্দেহ’ হয়, এখানে একটি নির্মাণাধীন স্কুলের নির্মাণ শ্রমিকরা আগুন দিয়েছেন। তারা তখন ওই স্কুলের নির্মাণশ্রমিকদের বেদম পিটিয়ে ও ইট দিয়ে থেতলিয়ে গুরুতর আহত করে। এদের মধ্যে দুজন নিহত হয়েছেন।  

কে বা কারা সেখানে আগুন দিয়েছে, তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ডুমাইন ইউনিয়নের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আসাদুজ্জামান তপন জানান, পাঁচ গ্রাম নিয়ে সেখানে পঞ্চপল্লী অবস্থিত। এলাকাটি সংখ্যালঘু অধ্যুষিত। এর মাঝে কৃষ্ণনগর নামে এক গ্রামে একটি বিদ্যালয়ের নির্মাণকাজের জন্য সেখানে কয়েকজন নির্মাণ শ্রমিক কাজ করছিলেন। পঞ্চপল্লীর একদল মানুষ ওই নির্মাণ শ্রমিকদের পিটিয়ে আহত করে নির্মাণাধীন স্কুল ঘরে আটকে রাখেন। এর মধ্যে নির্মাণশ্রমিক আপন দুই ভাই হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন।

দুই নির্মাণশ্রমিক মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন মধুখালী থানার ডিউটি অফিসার এসআই মো. নাজিমুদ্দিন। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, পিটুনিতে দুই নির্মাণ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন কয়েকজন।

নাজিমুদ্দিন আরও বলেন, এ ঘটনায় পুলিশেরও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৮২৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।