bangla news

না.গঞ্জ মহানগর বিএনপির কার্যক্রমে আদালতের নিষেধাজ্ঞা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-২৮ ১১:৪১:১৭ পিএম
বিএনপির লোগো

বিএনপির লোগো

নারায়ণগঞ্জ: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীরসহ নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় মহানগর বিএনপির কমিটির কার্যক্রমে অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) বাদীপক্ষের আইনজীবীদের অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দুই দফা শুনানি শেষে জেলা সিনিয়র সহকারী জজ শিউলী রানী দাসের আদালত এই আদেশ দেন।
 
আদালতে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল এবং আইনজীবী অ্যাডভোকেট রফিক আহমেদ, অ্যাডভোকেট আব্দুল বারী ভূঁইয়া, অ্যাডভোকেট জাকির হোসেন, অ্যাডভোকেট রিয়াজুল ইসলাম আজাদ, অ্যাডভোকেট আবু আল ইউসুফ খান টিপু, অ্যাডভোকেট আশরাফুল আলম সিরাজী রাসেল, অ্যাডভোকেট শরীফুল ইসলাম শিপলু, অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান মোল্লা ও অ্যাডভোকেট আসিফুজ্জামান।

বাদীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট আবু বক্কর সিদ্দিক, আওয়ামী লীগপন্থি আইনজীবী অ্যাডাভোকেট জালালউদ্দিন নগরী ও ব্যারিস্টার মো. এনামুল কবির।

গত ১১ নভেম্বর সিনিয়র সহকারী জজ শিউলী রানী দাসের আদালতে নারায়ণগঞ্জ মহানগরের ১০ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলজার খান ও একই ওয়ার্ডের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক (পৌরসভাকালীন) বিএনপি নেতা নূর আলম শিকদার বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। 

এ দুইজনই মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খানের অনুগামী হিসেবে পরিচিত। মামলায় বিবাদী করা হয়েছে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক মামুন মাহমুদ, মহানগর বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম ও সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামালকে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর কমিটি আলাদাভাবে দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এবং গঠনতন্ত্রের বর্ণিত বিধান অনুযায়ী উভয় সংগঠনের অধিক্ষেত্র ও পূর্ব থেকেই বিদ্যমান, যা উভয় দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন সমূহও গঠিত ও পরিচালিত। 

নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তবাদী দলের অধিক্ষেত্রসহ পাঁচটি থানা যথা ফতুল্লা, সোনারগাঁ, রূপগঞ্জ, আড়াইহাজার ও বন্দর থানার ৫টি ইউনিয়ন নিয়ে বন্দর উপজেলা এবং এই পাঁচটি উপজেলার অন্তর্গত সব ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটির মাধ্যমে পরিচালিত হয়। যা তত্ত্বাবধান করে জেলা কমিটি। 

অন্যদিকে গঠনতন্ত্র অনুসারে, নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটি গঠিত ও পরিচালিত। এই সিটি করপোরেশনের আওতায় নারায়ণগঞ্জ থানার ৮ টি ওয়ার্ড, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অন্তর্গত ১০ টি ওয়ার্ড এবং বন্দর থানার ৯ টি ওয়ার্ড অর্থাৎ সর্বমোট ২৭ টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটি গঠিত। 

পৌরসভা থাকাকালে নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটি একই ভাবে গঠিত হতো এবং পূর্বে ১ নং বাদী বর্ণিত মহানগর কমিটির সভাপতি ছিলেন। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন গঠিত হওয়ার পর থেকে এভাবেই মহানগর বিএনপি গঠিত। বাংলাদেশের অন্যান্য বৃহৎ রাজনৈতিক দলের মতো নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটি একই পদ্ধতিতে গঠিত ও পরিচালিত হয়। 

মামলার শুনানি বিষয়ে অ্যাডভোকেট রফিক আহমেদ বলেন, বর্তমান নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটি কেন্দ্র কর্তৃক অনুমোদিত ঘোষিত ও বৈধ। সেই কমিটিকে কিছু বিশৃঙ্খলাগামী দলীয় কর্মকাণ্ডের বাইরে থাকা লোকজন একটি মোকদ্দমা দায়ের করেছে। যার কোনো আইনত বিধান নেই। 

‘সেখানে তারা বলছে, এই কমিটি অবৈধ। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে কোর্ট শোকজের সাতদিনের মধ্যেই আমরা হাজির হয়ে সময় চেয়েছি আমরা লিখিত আপত্তি দেবো। তাদের আরও একটি আবেদন হচ্ছে- অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা। আমরা এটার আপত্তি দাখিল করেছি। আমাদের আপত্তির উপর শুনানির ভিত্তিতে আদালত বাদী পক্ষের নিষেধাজ্ঞার আবেদন মঞ্জুর করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২৩৩৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০১৯
এমএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বিএনপি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-28 23:41:17