ঢাকা, সোমবার, ৯ মাঘ ১৪২৮, ২৪ জানুয়ারি ২০২২, ২০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ফুটবল

পর্তুগিজদের বিপক্ষে ফেভারিট যুক্তরাষ্ট্র!

এম. আব্দুল্লাহ আল মামুন খান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩৩৬ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০১৪
পর্তুগিজদের বিপক্ষে ফেভারিট যুক্তরাষ্ট্র!

ময়মনসিংহ: বিশ্বকাপের ২০তম আসরে খেলতে যুক্তরাষ্ট্র যখন ব্রাজিলে আসে তখনো তাদের নিয়ে কারো খুব একটা আগ্রহ ছিল না। দলটিতে নেই মেসি নেইমার, রোনালদো কিংবা জাভি-ইনিয়েস্তার মতো বড় কোনো সুপার স্টারও।



কিন্তু এবারের বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ঘানার ব্ল্যাক ষ্ট্রারদের ২-১ গোলে হারিয়ে উড়ন্ত সূচনা করে আলোচনায় উঠে আসে যুক্তরাষ্ট্র।

ইতিহাসকে প্রভাবক হিসেবে ধরলে পর্তুগিজদের বিপক্ষে সোমবার ভোর ৪টার হাইভোল্টেজ ম্যাচে অবশ্যই ফেভারিট হিসেবে মাঠে নামছে জার্মান কোচ ইয়ুর্গেন ক্লিন্সম্যানের তত্ত্বাবধানে থাকা যুক্তরাষ্ট্র। জার্মান কোচ হিসেবে ২০০৬ সালের বিশ্বকাপে পর্তুগালকে হারানোর কৃতিত্ব রয়েছে তার।

দু’’দলের মধ্যকার লড়াইয়ে বিশ্বকাপে তাদের সর্বশেষ সাক্ষাত হয়েছিল ২০০২ সালের দক্ষিণ কোরিয়া-জাপান বিশ্বকাপে। হাড্ডাহাড্ডি সেই লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্র জিতেছিল ৩-২ গোলে। এক জোড়া আত্মঘাতী গোল হয়েছিল সেই ম্যাচটিতে। ফলে আজকের ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের গাঁযে সেঁটে গেছে ফেভারিটের তকমা।

ফিফা র‌্যাঙ্কিং এ পর্তুগালের ৪ নম্বর অবস্থানের বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান ১৩। এখন পর্যন্ত তাদের সেরা সাফল্য ১৯৩০ সালের উরুগুয়ে বিশ্বকাপ। সেবার আয়োজক দেশ উরুগুয়ে চ্যাম্পিয়ন হলেও মার্কিনিরা তৃতীয় স্থান দখল করে।

সেই সুখ স্মৃতি সামনে নিয়েই হয়তো আজ রোনালদোর পর্তুগালের বিপক্ষে মাঠে নামবে ক্লিন্ট ডেম্পসির দল। নক-আউট পর্বে পৌঁছাতে রোনালদোদের বাঁচা-মরার লড়াই চালিয়ে যেতে হলেও মার্কিনিদের জন্য এ ম্যাচ পরের পর্ব নিশ্চিতের।

পর্তুগিজদের আরেক দুশ্চিন্তার কারণ তাদের বিগত পরিসংখ্যান। বিশ্বকাপে গত ৮ ম্যাচে তারা জয় পেয়েছে মাত্র একটিতে। তিন ম্যাচে ড্র করলেও হেরেছে চারটিতে। অবাক হবার মতো আরো একটি তথ্য যাবে পতুর্গিজদের বিপক্ষে। তাদের সেরা খেলোয়াড় ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে একের পর এক গোলের রেকর্ড করলেও বিশ্বকাপে ৫৫টি শটের বিপরীতে গোল পেয়েছেন মাত্র দু’টি।

যুক্তরাষ্ট্রের সেরা স্ট্রাইকার জোজি অ্যাল্টিডোর ইনজুরির কারণে এ ম্যাচে খেলতে না পারলেও ঘানার বিপক্ষে মাত্র ২৯ সেকেন্ডে গোল করা ক্লিন্ট ডেম্পসি থাকবেন স্পটলাইটে। তার ওই গোলটি ইতোমধ্যেই ঠাঁই করে নিয়েছে বিশ্বকাপের পঞ্চম দ্রুততম গোল হিসেবে।

সেই ম্যাচে তার নাক ভেঙে গেলেও পর্তুগিজদের বিপক্ষে তিনি মুখে প্রতিরোধ মুখোশ লাগিয়ে নামবেন। ঘানা-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার ওই ম্যাচটি ইএসপিএন চ্যানেলে দেখেছেন ১ কোটি ১১ লাখ দর্শক।

যুক্তরাষ্ট্রের আরেক সেরা খেলোয়াড় মাইকেল ব্র্যাডলি। তিনি এ দেশটি’র সাবেক কোচ বব ব্র্যাডলি’র ছেলে। নিখুঁত ও সৃষ্টিশীল পাস দেওয়ার সামর্থ্যবান এ খেলোয়াড় বেশ অভিজ্ঞও। পর্তুগিজদের বিপক্ষে তিনি জ্বলে উঠলে আরো একবার পর্তুগিজদের লজ্জায় ডুবাতে পারেন ইয়ুর্গেন ক্লিন্সম্যানরা।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৩৬ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa