ঢাকা, শনিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২ রজব ১৪৪৪

শিক্ষা

গবেষণা নীতিমালা প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে ইউজিসি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২২
গবেষণা নীতিমালা প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে ইউজিসি

ঢাকা: দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ২০২১-২০২২ অর্থবছরে কলা ও মানবিক শাখার গবেষণা প্রকল্প প্রস্তাব মূল্যায়নে একটি কর্মশালা মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

কমিশনের রিসার্চ সাপোর্ট অ্যান্ড পাবলিকেশন (রিসাপা) ডিভিশন এই কর্মশালার আয়োজন করে।

কর্মশালায় ১১টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাওয়া ৩৬টি গবেষণা প্রকল্প প্রস্তাব মূল্যায়ন করা হয়।

কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউজিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. দিল আফরোজা বেগম। রিসাপা ডিভিশনের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন।

কর্মশালায় বিশেষজ্ঞ হিসেবে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান, ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. মেসবাহ কামাল ও অধ্যাপক ড. আশা ইসলাম নাঈম, ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. সুফি মোস্তাফিজুর রহমান, অধ্যাপক ড. মো. মোজাম্মেল হক, দর্শন বিভাগের অধ্যাপক ড. মনির হোসেন তালুকদার, ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. এ কে এম জসিম উদ্দিন ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন।

রিসাপা ডিভিশনের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ মনির উল্লাহর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে ইউজিসির অতিরিক্ত পরিচালক নাহিদ সুলতানা, মো. শাহীন সিরাজ ও প্রকৌশলী মোহাম্মদ জিয়াউর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক দিল আফরোজা বেগম বলেন, দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষা ও গবেষণার মানোন্নয়নে ইউজিসি নানামুখী উদ্যোগ নিয়েছে। মানবকল্যাণ ও জীবনমুখী গবেষণা পরিচালনা করা এবং ইনোভেটিভ এডুকেশন ইকোসিস্টেম তৈরির দিকেও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

বৈশ্বিক মহামারি ও আর্থিক মন্দার মধ্যেও সরকার গবেষণা খাতে বরাদ্দ কমায়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, গত অর্থবছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের বাজেটে গবেষণা খাতে বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে। ২০২২-২৩ অর্থবছরে মূল বাজেটে ১৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।  

তিনি দেশের জনগণের কষ্টার্জিত অর্থের সদ্যবহার  নিশ্চিত করতে গবেষকদের অনুরোধ করেন। একইসঙ্গে তিনি বর্তমান সরকারের উন্নয়ন রূপরেখার সাথে সামঞ্জস্য রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরকে গবেষণা কর্মকাণ্ড পরিচালনার আহ্বান জানান।

অধ্যাপক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, বাংলাদেশ যাতে উদ্ভাবন, গবেষণামুখী ও প্রযুক্তিনির্ভর হয় সেজন্য ইউজিসি গবেষণা নীতিমালা প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে। নীতিমালায় গবেষণা পরিচালনায় অর্থ বরাদ্দ ও ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিক সহযোগিতা বাড়ানোর ওপর গুরত্বারোপ করা হবে। এই নীতিমালা বাস্তবায়ন করা গেলে দেশে রিসার্চার ডেমোগ্রাফি বা গবেষকদের ডাটাবেজ তৈরি হবে। এই ডাটাবেজ থেকে গবেষকের সংখ্যা ও কোন বিষয়ে মোট কত গবেষণা পরিচালিত হয়েছে সেটির সঠিক চিত্র পাওয়া যাবে। এটি উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২২
এমআইএইচ/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa