ঢাকা, বুধবার, ৪ কার্তিক ১৪২৮, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

নজিরবিহীন নিরাপত্তায় চট্টগ্রাম আদালত

রমেন দাশগুপ্ত ও আবদুল্লাহ আল মামুন | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯০২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০১৪
নজিরবিহীন নিরাপত্তায় চট্টগ্রাম আদালত ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম: চাঞ্চল্যকর দশ ট্রাক অস্ত্র মামলার রায়কে কেন্দ্র করে নাশকতার আশংকায় চট্টগ্রাম আদলতকে ঘিরে নজিরবিহীন নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে। আদালতের প্রায় সব প্রবেশপথেই বসানো হয়েছে পুলিশের চেকপোস্ট।

মোড়ে মোড়ে চলছে তল্লাশি।

আদালতের পাহাড়ে থাকা সব উঁচু ভবনের উপরে, ফুট ওভারব্রিজের উপরে বৃহস্পতিবার ভোর থেকেই মোতায়েন করা হয়েছে আর্মড পুলিশ। এছাড়া নাশকতার আশংকায় চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েণ্টেও মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আদালত ভবন পর্যন্ত এলাকায় বুধবার রাত থেকেই নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নগর পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দশ ট্রাক অস্ত্র মামলার রায়কে ঘিরে বন্দরনগরীতে সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং পুলিশ সদর দপ্তর থেকে মনিটরিং করা হচ্ছে। নিরাপত্তার ব্যাপারে কোন শৈথিল্য যেন না থাকে সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে সিএমপিকে।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) বনজ কুমার মজুমদার বাংলানিউজকে বলেন, ‘দশ ট্রাক অস্ত্র মামলার রায় খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ রায়কে ঘিরে কেউ যেন কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে না পারে সেজন্য পুলিশকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রাখা হয়েছে। ’

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,  নগরীতে এপিবিএন ও সাধারণ পুলিশ মিলিয়ে প্রায় দেড় হাজার পুলিশ মোতায়েন আছে। আদালত ভবন এলাকায় আছে দশ প্লাটুন অতিরিক্ত ‍পুলিশ। রায়ের পর নাশকতা মোকাবেলায় বিজিবিকেও প্রস্তুত থাকার জন্য বলা হয়েছে।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (প্রসিকিউশন) মুহাম্মদ রেজাউল মাসুদ বাংলানিউজকে জানান, চট্টগ্রাম আদালত ভবনে প্রায় দশ প্লাটুন অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ভোর ৫টার থেকে মোতায়েন করা হয়েছে।

এদিকে বুধবার গভীর রাত থেকে আদালত ও কারাগার ঘিরে পুলিশের একাধিক টিম টহল দিয়েছে। র‌্যাবের একাধিক টিমও পুলিশের সঙ্গে টহল দিচ্ছে।

রেজাউল মাসুদ জানান, আদালত এলাকায় প্রবেশপথে সবাইকে তল্লাশির পাশাপাশি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের গতিবিধিও নজরে রাখা হচ্ছে। এছাড়া বিচারিক আদালত চট্টগ্রামের স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক এস এম মুজিবুর রহমানের আদালত ও এজলাসকে বাড়তি নিরাপত্তার আওতায় আনা হয়েছে।

চট্টগ্রাম আদালত ভবনে উঠার সড়কে এবং ভবনের বিভিন্ন ফ্লোরে থাকা সব অস্থায়ী দোকানপাট গত মঙ্গলবার থেকে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

এক সপ্তাহ আগে থেকেই দশ ট্রাক অস্ত্র মামলার বিচারকের বাসভবন ও এজলাসের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এর মধ্যেও গত সোমবার রাতে আদালত ভবনের আলামতখানায় এবং রেকর্ড রুমের সামনে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। পুলিশ এ ঘটনা পরিকল্পিত আতংক সৃষ্টির চেষ্টা বলে ধারণা করছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯০২ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০,২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa