ঢাকা, শুক্রবার, ৬ কার্তিক ১৪২৮, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিল্প-সাহিত্য

ক্ষুদে লেখক মিহিকার তৃতীয় বই ‘স্বপ্নের রং’ প্রকাশিত

শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৫ ঘণ্টা, জুন ৩, ২০২১
ক্ষুদে লেখক মিহিকার তৃতীয় বই ‘স্বপ্নের রং’ প্রকাশিত ক্ষুদে লেখক মিহিকার তৃতীয় বই ‘স্বপ্নের রং’ প্রকাশিত।

ঢাকা: এক অনলাইন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মিহিকা খানের নতুন গল্পের বই ‘স্বপ্নের রং’ বুধবার (০২ জুন) প্রকাশিত হয়েছে। ১২ বছর বয়সী তরুণ লেখক মিহিকার এটি তৃতীয় প্রকাশিত বই।

তিনটি রঙিন স্বপ্নের গল্প রয়েছে এই বইটিতে পেনসিল বক্স, স্মল বিন ও বন্ধু বিদায়। এই বইয়ের প্রচ্ছদসহ সবগুলো ইলাস্ট্রেশন লেখক নিজেই করেছেন।

সাংবাদিক মুনির হাসানের সঞ্চালনায় অনলাইন প্রকাশনা উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ এবং অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অ্যাডর্ন পাবলিকেশনের স্বত্বাধিকারী বইটির প্রকাশক সৈয়দ জাকির হোসাইন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, আমি স্বপ্নের রং বইটি আনন্দ নিয়ে পড়েছি। বয়সে ছোট হলেও, মিহিকার লেখা বেশ পরিণত। তাছাড়া সে খুব ভালো ছবি আঁকে। আমি আমার ছোটবেলার সঙ্গে মিহিকার মিল খুঁজে পাচ্ছি। ড. জাফর ইকবাল আশা প্রকাশ করেন যে মিহিকা এমন ভালো বই লিখবে যে পাঠক এবং প্রকাশক তার পরের বইয়ের জন্য অপেক্ষা করবে।

বিশেষ অতিথি ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ বলেন, বই লেখা ছাড়াও সে আরও অনেক ব্যাপারে আগ্রহী এবং পারদর্শী। সে ছবি আঁকে, ইলাস্ট্রেশন করে, গণিতের সমস্যা সমাধান করে, এমনকি নাটকে অভিনয় করে। আশা করি মিহিকা অনেক বড় হবে।

লেখক মিহিকা জানান, বই পড়তে প্রচণ্ড ভালোবাসেন। বই পড়তে পড়তেই একদিন ভাবনা আসে, আচ্ছা এত মানুষ যে বই পড়ে তার মধ্যে কয়জন নিজে বই লেখে! মিহিকা খানের ধারণা শতকরা হিসেবে সংখ্যাটা ৫ এর বেশি নয়। কেনো না এই ৫ জনের একজন হওয়ার চেষ্টা করা যাক! এই ভাবনা থেকেই লেখালেখি শুরু মিহিকা খানের।

খন্দকার নূর-ই জান্নাত শশী ও ড. শাহাদাত খানের একমাত্র সন্তান মিহিকার জন্ম কানাডার ভ্যানকুভারে এবং পড়াশুনা চলছে ঢাকার আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে। ইংলিশ মিডিয়ামের একজন শিক্ষার্থী হয়েও মিহিকার বাংলায় বই লেখার প্রতি আগ্রহ তার মা-বাবাকে উৎসাহিত করে বই প্রকাশের কাজকে গুছিয়ে দিতে। শিশুদের মধ্যে বই লেখা, ছবি আঁকা ইত্যাদি সৃজনশীল কাজগুলো ক্রমশঃ কমে যাচ্ছে বলে মনে করেন খন্দকার নূর-ই জান্নাত শশী।

ড. শাহাদাত খান মনে করেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ডিজিটাল মিডিয়া অপব্যবহার না করে যে মৌলিক সৃজনশীল কাজে লাগানো যায় মিহিকার বইগুলো তার একটি উদাহরণ হতে পারে।

‘স্বপ্নের রং’ এর প্রকাশনা অনুষ্ঠানের সঞ্চালক মুনির হাসান বলেন, মিহিকা তার আশেপাশের ঘটনা থেকে লেখার উপাদান জোগাড় করে। ভালো লেখার জন্য অনেক বই পড়া দরকার।

বইটির প্রকাশক অ্যাডর্ন পাবলিকেশনের স্বত্বাধিকারী সৈয়দ জাকির হোসাইন মিহিকার সঙ্গে কাজ করার আনন্দের কথা জানান। বইয়ের গ্রাফিক সেটআপ চলাকালীন সময়েও প্রকাশকের অনুরোধে মিহিকা বেশ কিছু নতুন কভার, ইনার কভার এবং ইলাস্ট্রেশন এঁকে দেন।

স্বপ্নের রং এর মূল্য ধরা হয়েছে ২৫০ টাকা। বইটি সেগুনবাগিচায় অ্যাডর্ন পাবলিকেশনের অফিস থেকে অথবা অনলাইনে রকমারি rokomari.com থেকে সংগ্রহ করা যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৫ ঘণ্টা, জুন ০৩, ২০২১
কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa