bangla news

অবসরের ছবিতে নতুন প্রাণ পেলো গ্যালারি চিত্রক

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-০৩ ৮:০৮:৩৩ পিএম
প্রদর্শনীতে আট শিল্পীর ৭৫টি চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে। ছবি: বাংলানিউজ

প্রদর্শনীতে আট শিল্পীর ৭৫টি চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দীর্ঘদিনের অনভ্যস্ততা কাটিয়ে সবারই বেশ সাবলীল বিচরণ দেখা গেলো ক্যানভাসে। শিল্পীদের সেসব রং-তুলির আঁচড়ে ছবিতে উঠে এসেছে সমসাময়িক বিষয়, বাংলার প্রকৃতি, মানুষ ও জীবন। আছে রোহিঙ্গাদের জীবন, গ্রাম বাংলার খেটে খাওয়া মানুষ, ফুল, পাখি, নদীও।

রাজধানীর ধানমন্ডির গ্যালারি চিত্রকে শুরু হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার ’৭৪ ব্যাচের আট জন শিক্ষার্থীর ছবি নিয়ে যৌথ প্রদর্শনী। শিল্পীদের অনেকেই চারুকলা থেকে পাস করে কর্মক্ষেত্রে নিয়োজিত ছিলেন। সেখান থেকে অবসরে যাওয়ার পর নতুন করে ছবি আঁকা শুরু করেছেন তারা। সেসব ছবিই স্থান পেয়েছে প্রদর্শনীতে।

সন্ধ্যায় প্রধান অতিথি হিসেবে ‘ফ্রেম ৭৪’ শীর্ষক এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন বরেণ্য শিল্পী মুস্তফা মনোয়ার। বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্পী শহীদ কবির ও অধ্যাপক সৈয়দ আজিজুল হক। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন প্রদর্শনীতে অংশ নেওয়া শিল্পীদের মধ্যে সামিনা শারমিন, ওয়াহিদ জামান টোকন ও জি এম খলিলুর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন গ্যালারি চিত্রক এর নির্বাহী পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান।

মুস্তফা মনোয়ার বলেন, মেধা থাকলে ভালো তবে নিরলস পরিশ্রম মেধাকে ছাপিয়ে যেতে পারে। মেয়েদের অরও বেশি করে শিল্পের ভুবনে অংশ নেওয়া উচিত। বাংলার লোকশিল্পের যা কিছু অর্জন তা বাংলার মেয়েদের অবদান। তাই মেয়েদের পিছিয়ে যাওয়ার কোনো কারণ নেই।

তিনি বলেন, দায়বদ্ধতা নয়, মনের ভেতর থেকে যেটা প্রকাশ পাবে, সেটিই প্রকৃত শিল্প। আর ছবির মধ্যে কোনো ব্যাখ্য-বিশ্লেষণ বা কথা বলার দরকার নেই। সেখানে শুধু অনুভূতি থাকলেই হবে। আর সেটি এমনভাবে, যেন সেটি কোনো ছবি আঁকা নয়, নিজেকে প্রকাশ করা হবে।

সৈয়দ আজিজুল হক বলেন, একজন শিল্পী যখন কাজের মধ্যে লিপ্ত হন, তখন তিনি তার কাজ দিয়ে আমাদের রুচিবোধ, উন্নত মানষিকতা তৈরি করে দেন। এই কাজটি মনুষ্যত্বকে জাগ্রত করার সমান।

শহীদ কবির বলেন, সাধনার বিকল্প নেই। মেধা যদি থাকে তবে তার মাঝে তাড়না থাকবেই। তখন তাড়না বলে দেবে কী করতে হবে! আমি এখনো প্রতিদিন নয় ঘণ্টা ছবি আঁকি। তাই ছবি আঁকার কোনো বয়স নেই। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ৬৫ বছর বয়সে ছবি আঁকা শুরু করেছিলেন। তাই সাহস নিয়ে ছবি আঁকার কাজে হাত দিতে হবে আমাদের।

কর্মজীবন থেকে অবসরের পর সবাই গুটিয়ে যান। ছুটি নেন জীবন থেকে। তবে সেই পথে পা না বাড়িয়ে আট জন শিল্পী নতুন করে শুরু করলেন জীবন। অবসরের পর আবার নতুন করে শুরু ছবি আঁকা। সেইসব ছবি নিয়েই ‘ফ্রেম ৭৪’ শীর্ষক এই চিত্র প্রদর্শনী।

প্রদর্শনীতে অংশ নেওয়া শিল্পীরা হলেন সাকিনা হোসেন, পারভীন জামান শাম্মু, রাহাত নিলুফার, সামিনা শারমীন, ওয়াহিদ জামান টোকন. মাহমুদুর রহমান অপু, জি এম খলিলুর রহমান ও মো. ফরিদ হোসেন সিদ্দিকী।

প্রদর্শনীতে আট শিল্পীর ৭৫টি চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে। প্রদর্শনী চলবে ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত। ধানমন্ডির (গ্রিন রোড) ৬ নম্বর সড়কের গ্যালারি চিত্রকে প্রদর্শনী খোলা থাকবে সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত।

বাংলাদেশ সময়: ২০০০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৩, ২০২০
এইচএমএস/এইচএডি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-03 20:08:33