ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

শিল্প-সাহিত্য

দু’টি কবিতা | তাসরুজ্জামান বাবু

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯০৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭
দু’টি কবিতা | তাসরুজ্জামান বাবু দু’টি কবিতা | তাসরুজ্জামান বাবু

বাসন্তী বিকেলে পার্কের বেঞ্চিতে রমাকান্ত কামার

বাসন্তী বিকেলে হাঁটতে বেরিয়েছেন রমাকান্ত কামার

চৈতালি হাওয়ার ঝাপ্টায় বেঞ্চিতে জমে আছে ধুলোর আস্তরণ

শ্রীযুক্ত রমা জনৈক ভদ্রলোক হয়ে বসলেন পার্কের বেঞ্চিতে

এবং অকস্মাৎ...

চোখ গেলো তার তামাটে মাটিতে

একটি শুকনো সেগুন পাতা দুধ-চায়ের মতো

বাদামী বরণ যার

আলগোছে পড়ে আছে কোকড়ানো পিঠে

মচমচে মুড়ির মতো ঝুরঝুরে যা

‘ও এটা?’ ভাবলেন রমাকান্ত কামার

‘আমি এটা দূরে পাঠিয়ে দেবো এক ফুঁয়ে

চৈতালি হাওয়ার সমান্তরালে ভাসতে ভাসতে

হারিয়ে যাবে জিরো ডিগ্রি কোণে । ’

এই বলে রমাকান্ত বেঞ্চি থেকে উঠে

হাঁটু মুড়ে বসলেন শুকনো পাতার সামনে

মৃদু একটা ফুঁ দিলেন হেলাচ্ছলে

অতঃপর জানতে চান?

রমাকান্ত কামার নড়ে চড়ে বসলেন বাধ্য হয়ে

কেননা শুকনো সেগুন পাতাটি নড়েনি একচুলও

এবং তারপর

ফুঁয়ের পর ফুঁ দিয়ে চলেছেন রমাকান্ত

শরীরের সবটুকু শক্তি ব্যয়ে

তার ফুঁয়ের বাতাসে ঝড় উঠল পার্কের বৃক্ষশাখায়

নদীর পানি ফুঁসে উঠল, লণ্ডভন্ড হয়ে গেলো দিগ্বিদিক।

প্যালিনড্রোমিক ডিগবাজি দেন রমাকান্ত কামার

এপাশ-ওপাশ-ডান-বামে চারদিকে

নিরন্তর ছুটোছুটি করে ফুঁ দিয়ে যান ঘাম ঝরানো পরিশ্রমে

সবদিক থেকেই একই ব্যক্তি রমাকান্ত কামার

সুতরাং একই রকম প্রচেষ্টা তার বিদ্যমান সর্বদিকে।

চারপাশ থেকে গাছের পাতারা এসে

তার শরীরকে বেষ্টন করছে ক্রমাগত

ধীরে ধীরে ডুবে যাচ্ছেন পাতার চাদরে...

অথচ এখনো অনড় শুকনো সেগুন পাতাটি।
 

একদিন কবিতা হয়ে

বলা নেই কওয়া নেই হুট করে

আমি একদিন কবিতা হয়ে যাব

কোনো এক সুন্দর সন্ধ্যায়...

আকাশ, বাতাস, নদী, মাঠ কিংবা

গোলাপ ঝাড়

অথবা হলুদ শর্ষেক্ষেত একদিন কবিতা হয়ে যাবে

গাঁয়ের চপলা কিশোরীরা একদিন দল বেঁধে

কলসি কাঁখে ঘাটে এসে কবিতা হয়ে যাবে

একদিন কবিতা হয়ে যাবে স্নিগ্ধ বিকেল,

চায়ের টেবিল অথবা ডুবুডুবু সূর্যটা

নরম চাঁদ, রূপালি রাতও একদিন

কবিতা হয়ে যাবে

একদিন কবিতা হয়ে যাবে বৃষ্টির ধারা,

নূপুরের নিক্কন, কোকিলের কুহু

অথবা গাঁয়ের মেঠোপথ, বিশাল পাহাড়,

সাগরের ঢেউ,

শহর-নগর, দালান-কোঠা, ট্রাফিক সিগনাল

কিংবা কুলিদের ঘাম একদিন কবিতা হয়ে যাবে

নর্দমা, পচা লাশ, বুভুক্ষু কুকুর,

যাবতীয় দুঃখ, যুদ্ধ বিগ্রহ অথবা

পারমাণবিক বোমা-সবকিছু

একদিন কবিতা হয়ে যাবে

একদিন তুমি এবং তোমরা

সুন্দরবনের ভেতর দিয়ে হাঁটতে হাঁটতে

হঠাৎ কবিতা হয়ে যাবে

পৃথিবী, সৌরজগৎ,

ছায়াপথ, মহাবিশ্ব

যা কিছু ভালো, যা কিছু মন্দ

সমস্তই পরম রূপে পৌঁছে যাবে

একদিন কবিতা হয়ে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭
এসএনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa