bangla news

বইমেলা: প্রথম সপ্তায় এসেছে ৫৫১ বই

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০২-০৭ ১১:৫৮:২৩ এএম

সোমবার আসা ৮৬টিসহ অমর একুশে বইমেলার প্রথম সপ্তায় আসা মোট বইয়ের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৫১টিতে। এ সংখ্যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২৪০টি আর ২০০৯ সালের তুলনায় ৫৫টি কম। ২০০১০ সালের প্রথম সপ্তায় ৭৯১টি ও ২০০৯ সালে এসেছিল ৬০৬টি বই।

ঢাকা: সোমবার আসা ৮৬টিসহ অমর একুশে বইমেলার প্রথম সপ্তায় আসা মোট বইয়ের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৫১টিতে। এ সংখ্যা গত বছরের একই সময়ের তুলনায় ২৪০টি আর ২০০৯ সালের তুলনায় ৫৫টি কম। ২০০১০ সালের প্রথম সপ্তায় ৭৯১টি ও ২০০৯ সালে এসেছিল ৬০৬টি বই।

সর্বাধিক ১৪২টি বই এসেছে ৪ ফেব্রুয়ারি। পরদিন এসেছে দ্বিতীয় সর্বাধিক ১২০টি। এছাড়া ৬ ফেব্রুয়ারি ৯৭টি, ৩ ফেব্রুয়ারি ৭৭টি এবং ২ ফেব্রুয়ারি ২৯টি বই এসেছে।

এসব বইয়ের মধ্যে উপন্যাস সর্বাধিক ১০৬টি, কবিতা ৯৯টি, গল্প ৬৬টি, প্রবন্ধ ৫৮টি, ছড়া ও জীবনী/স্মৃতিচারণমূলক বই ২১টি করে, ভাষা আন্দোলন/মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক বই ১৮টি, সায়েন্স ফিকশন/গোয়েন্দাকাহিনী ১৭টি, ভ্রমণবিষয়ক ও শিশুসাহিত্য ১৫টি করে, বিজ্ঞান/গণিত ও রম্য/ধাঁধা ১২টি করে, চিকিৎসা/স্বাস্থ্যবিষয়ক ১০টি, রাজনীতিবিষয়ক নয়টি, অনুবাদগ্রন্থ ছয়টি, নাটক পাঁচটি, ইতিহাস ও ধর্মীয় দু’টি করে, অভিধান একটি এবং অন্যান্য ক্যাটাগরির রয়েছে ৩৯টি।

এর আগে একই সময়ে ২০০৬ সালে ৪৫৪টি, ২০০৭ সালে ৩৮২টি, ও ২০০৮ সালে এসেছিল ৫২২টি বই।

এদিকে, সোমবার আসা বইগুলোর মধ্যে কবিতার ১৬টি এবং উপন্যাস ও গল্পের রয়েছে ১৫টি করে। এছাড়া রয়েছে প্রবন্ধ, ছড়া ও ভ্রমণবিষয়ক বই পাঁচটি করে, চারটি করে গবেষণা ও জীবনী/ স্মৃতিচারণমূলক, তিনটি করে ভাষা আন্দোলন/মুক্তিযুদ্ধ ও সায়েন্স ফিকশন/গোয়েন্দা, অনুবাদগ্রন্থ দু’টি, বিজ্ঞান বিষয়ক একটি এবং অন্যান্য ক্যাটাগরির পাঁচটি বই।

সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ওবায়দুল কাদেরের অনুবাদগ্রন্থ ‘পাকিস্তানের কারাগারে বঙ্গবন্ধু’ (মূল: রবার্ট পেইন) নিয়ে এসেছে চারুলিপি প্রকাশন। বঙ্কিম চন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের বিখ্যাত উপন্যাস কপাল কু-লার নতুন সংস্করণ এনেছে মুক্তধারা। অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদের সম্পাদনায় হাক্কানী পাবলিশার্স এনেছে ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা+ঐতিহাসিক স্থানসমূহ সংরক্ষণ: দু’টি ঐতিহাসিক রায়’। মোহাম্মদ রফিকের ‘কবিতা সমগ্র’ এনেছে ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ। নালন্দায় এসেছে নীলিমা ইব্রাহিমের ‘শাহী এলাকার পথে পথে’। একুশে বাংলা প্রকাশন এনেছে বিপ্রদাশ বড়–য়ার উপন্যাস ‘ভেতরে একজন কাঁদে’ ও আব্দুল মান্নান সৈয়দের ‘নির্বাচিত উপন্যাস’।

আগামী প্রকাশনী এনেছে হুমায়ূন মালিকের ‘নির্বাচিত গল্প : হুমায়ূন মালিক’, আশফাক-উল-আলমের প্রবন্ধ ‘ইদানীং বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’, দীপিকা ঘোষের উপন্যাস ‘অসতী হয়েছে ময়না’, প্রদ্যোৎ সেনের কবিতা ‘আবির্ভাব’ এবং মোর্শেদা জামান লিজির গল্প ‘রঙ দিয়েছে প্রজাপতি’।

জনান্তিকে এসেছে কাজী মোহাম্মদ শীশের প্রবন্ধ ‘অনাতিকালের কথা’, কাজী দিশুর কবিতা ‘অন্তিম প্রার্থনা’, ওবায়েদ আকাশের কবিতা ‘ওবায়েদ আকাশের কবিতা আদি পর্ব’, অধ্যাপক ডা. সামিনা চৌধুরীর স্বাস্থ্যবিষয়ক ‘নিরাপদ মাতৃত্বের জন্যে’ এবং এ কে এম আশরাফুল হক অনূদিত গল্পগ্রন্থ ‘গ্রীক পুরাণের গল্প’।

বঙ্গ কবিদার ‘নতুন গঠনের কবিতা’, সুলতানা রুবীর উপন্যাস ‘গোপন আমার সঙ্গে’, আলম তালুকদারের স্মৃতিকথা ‘স্মৃতি সব করে রব’ এবং শাহরীয়ার শরীফের সায়েন্স ফিকশন ‘ধ্বংস দ্বীপ’ এনেছে বিভাস।

শুদ্ধস্বর এনেছে নাজমা জেসমিন চৌধুরীর উপন্যাস ‘লোকে বলে’, পিয়াস মজিদের কবিতা ‘মারবেল ফলের মওসুম’, বদরুন নাহারের গল্প ‘ভাত গল্প’ এবং ইকবাল হোসেন চৌধুরী অনূদিত জীবনী ‘আমিই পেলে’।

মোস্তফা কামালের উপন্যাস ‘নন্দিনী তুমি কোথায়’, পারভেজ চৌধুরী অণূদিত ‘চে গুয়েভারাকে নিয়ে কবিতা’, মোস্তফা মামুনের খেলাধুলাবিষয়ক ‘টাচলাইন থেকে বিশ্বকাপে’ এবং আবু রায়হানের ভ্রমণ কাহিনী ‘প্যারেড নগরী’ এনেছে সময় প্রকাশনা।

নালন্দায় এসেছে বেনীমাধব সরকারের ছড়া ‘ছাদের ওপর চাঁদের আলো’, আমিনুর রহমান সুলতানার স্মৃতিকথা ‘সোমেন চন্দের ছেলেবেলা’, মেরী এলেন চেজের ভ্রমণবিষয়ক ‘বস্টানের পথে’ এবং মাহবুব রেজার গল্প ‘লক্ষ্মীট্যারা ইফতি’।

ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশন এনেছে মোস্তফা কামালের উপন্যাস ‘লিডার রবি’, জ্যোর্তিময় বসুর উপন্যাস ‘রক্তাক্ত সময়’, এবং সুফিয়া বেগমের শিশুতোষ গল্প ‘বুবিপুতুল ও ভূতের গল্প’।

মাওলা ব্রাদার্সে এসেছে মাসুদ আহমেদের উপন্যাস ‘চাঁদ যখন উঠলো’ ও ছোটগল্প ‘অন্যজন’, মোহাম্মদ আবদুল মান্নানের ছোটগল্প ‘পাসওয়ার্ড’ এবং সাবিনা পারভীনের কবিতা ‘কালোমেঘে জরির জমিন’।

ঐতিহ্য এনেছে  হাসান খুরশীদ রুমী অনূদিত ‘সাইকেল অব দা ওয়্যারউলফ’, ধ্রুবনীলের গল্প ‘ভয়ানস্কি ভুতোকভ’ এবং শেখ আব্দুল হালিমের থ্রিলার ‘লোতানি গুপ্তধন’।

পার্ল পাবলিকেশন্সে নতুন এসেছে খালেদ মুহিউদ্দীনের গল্প ‘মানুষী দুর্বলতা’, খন্দকার মাহমুদুল হাসানের প্রবন্ধ ‘প্রাচীন পৃথিবীর আশ্চর্য কাহিনী’ এবং সারওয়ার-উল-ইসলামের উপন্যাস ‘ইশকুল বালিকা’।

কাব্য প্রকাশ এনেছে রাশেদ মামুনের তিনটি ছড়ার বই ‘কোলা ব্যাঙের ছা হবে’, ‘আজ পলাশের বিচার হবে’ এবং ভূতের স্পেশ্যাল ছড়া’।

শিরীন পাবলিকেশন্স এনেছে ফাহিদ হাসানের উপন্যাস ‘ভালোবার লিরা’, কানিজ কাদীরের কাব্যগ্রন্থ ‘শব্দটি ভাষা পেল’ এবং সেলিম মো. শাহিদুল আলমের কাব্যগ্রন্থ ‘এবং জীবন’।

শফিকুল ইসলামের গল্প ‘১১টি ছোটগল্প’, তুহীন তরিকুল ইসলামের কবিতা ‘আমার শূন্য খাঁচা ও তুমি’ এবং এবং শেখ মোন্তফা নূরুল আমীনের জীবনী ‘বঙ্গবন্ধুর জীবনালেখ্য’ এনেছে প্রান্ত প্রকাশন।

এছাড়া একুশে বাংলা শাহজাহান চৌধুরীর উপন্যাস ‘যন্ত্রণার নদী’ ও জাহানারা তোফায়েলের ভ্রমণ কাহিনী ‘আমি গিয়েছি বরফ ঢাকা সেই কাশ্মীরে’, গ্লোব লাইব্রেরি হোসনে আরা শাহেদের উপদেশমূলক বই ‘শতবার্তা’ ও ড. স্বপ্না রায়ের গল্প ‘কেরালায় কয়েকদিন’, চারুলিপি প্রকাশন তাজুল মোহাম্মদের ‘আল বদরের ডায়েরি’ ও মিনা ফারাহর ‘ডিভি’র ফাদে লোরান আলী’, শ্রাবণ প্রকাশনী আমীন আল রশীদের কবিতা ‘যাহা ভাবি আমি দেখি শুনি অথবা বলি কিংবা’ ও দিলরুবা জেসমিনের কবিতা ‘সুখেরা আমার দুঃখেরা আমার’, সিঁড়ি প্রকাশন ডা. খলিল-আল-আজমের কবিতা ‘খোলা বাতায়নে অতৃপ্ত দখিন হাওয়া’ ও এনায়েত রসুলের উপন্যাস ‘সার্কাসের ছেলে’, নন্দিতা প্রকাশ আশরাফ পিন্টুর গল্প ‘ভালবাসার দ্বিতার সুত্র’ ও সাইফুল ইসলাম সোহাগের উপন্যাস ‘স্বপ্নের জীবনে স্মৃতির কান্না’, উৎস প্রকাশন মঙ্গল কুমার চাকমা ও অন্যান্যের গবেষণা ‘বাংলাদেশের আদিবাসী (২য় খ-)’ ও রব্বানী চৌধুরীর গবেষণা `History of Sylhet`, জাগৃতি প্রকাশনী রুমানা বৈশাখীর গল্প ‘অপদেবতা’ ও মানবীর কবিতা ‘উলঙ্গ’,

রোদেলা প্রকাশনী বিধান রিবেরুর প্রবন্ধ ‘চলচ্চিত্র পাঠ সহয়িকা’ ও ঐ ওয়াহিদ রেজার গবেষণাগ্রন্থ ‘লোকান্তরে যিশু’, মুক্তচিন্তা প্রকাশনা আজাদ আলাউদ্দিনের কবিতা ‘মৃতের শাস্ত্র’ ও মঙ্গলচন্দ্র মন্ডলের সংগীতবিষয়ক ‘জনক রাগ সমগ্র’, মুক্তদেশ শেখ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ মিন্টুর গবেষণা ‘পনেরো আগস্ট ট্র্যাজেডি ও জনক হত্যার কারণ’, প্রথমা প্রকাশন মুহাম্মদ জাফর ইকবালের সায়েন্স ফিকশন ‘বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী প্রডিজি’, অনিন্দ্য প্রকাশ লিয়াকত হোসেন খোকনের ভ্রমণ ‘আনন্দ উল্লাসের নগরে’, বিজয় প্রকাশ হামিদুল ইসলাম রবিউলের কবিতা ‘পোড়া বুকের রক্তরণ’, এশিয়া পাবলিশার্স ডা. মো. তাজুল ইসলামের মানসিক সমস্যাবিষয়ক ‘মন ও মানুষ-৩’, কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমী আবদুল হাকীমের ছড়া ‘ছড়ায় ছড়ায় কষ্ট ঝড়াই’, জ্যোতি প্রকাশ জাহাঙ্গীর সেলিমের ‘হারিয়ে যাওয়া সংস্কৃতি’, দিব্যপ্রকাশ   নাহার মানিকার গল্প ‘পৃষ্ঠাগুলি নিজের’, অনুপম প্রকাশনী জোবাইর ফারুকে ‘রসায়ন অলিম্পিয়াড’ এবং শব্দশিল্প প্রকাশন এনেছে পারভীন বাশার শহীদুল্লাহর গল্পগ্রন্থ ‘ভূত রাস ও নীল হাতি’।

বাংলাদেশ সময়: ২২৫৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

শিল্প-সাহিত্য বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
db 2011-02-07 11:58:23