ঢাকা, বুধবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৮, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩ সফর ১৪৪৩

স্বাস্থ্য

বাংলানিউজে মত প্রকাশে ডা. সামসুজ্জামানকে উকিল নোটিশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১২ ঘণ্টা, জুলাই ২৫, ২০২১
বাংলানিউজে মত প্রকাশে ডা. সামসুজ্জামানকে উকিল নোটিশ অধ্যাপক ডা. এস এম সামসুজ্জামান

ঢাকা: বাংলানিউজে প্রকাশিত সংবাদের জেরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. এস এম সামসুজ্জামানকে উকিল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

রোববার (২৫ জুলাই) ডা. সামসুজ্জামান ডাকযোগে পাওয়া নোটিশের বিষয়ে বাংলানিউজকে জানান।

নোটিশ দাতা হচ্ছেন, দৈনিক আল ইহসান ও মাসিক বাইয়্যিনাত পত্রিকার সম্পাদক মুহম্মদ মাহবুব আলম। ঠিকানা ৫ আউটার সার্কুলার রোড, রাজারবাগ শরীফ, ঢাকা।

নোটিশে বলা হয়, গত ১০ জুলাই বাংলানিউজে প্রকাশিত সংবাদে আপনি মন্তব্য করেছেন, ‘লকডাউন’ কঠিনভাবে কার্যকরের কোনো বিকল্প নেই

এতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে আপনার প্রচারিত মূল্যায়ন বাস্তবতা বর্জিত, অবৈজ্ঞানিক ও বিভ্রান্তিকর। ‘লকডাউন’ মৃত্যুহার কমাতে পারে এমন মন্তব্যের কোনো প্রমাণিত বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। সারা বিশ্বে যেসব দেশে করোনায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে তার প্রথম ১০টিতেই ‘লকডাউন’ হয়েছে। অপরদিকে ‘লকডাউন’ না হয়েও সুইডেন ২৫তম অবস্থানে আছে। আবার ‘লকডাউন’ তুলে নেওয়ার পরেও অনেক দেশে আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে।

এর আগে একই ঠিকানা ব্যবহার করে বাংলানিউজে প্রকাশিত সংবাদের জেরে হেলথ অ্যান্ড হোপ স্পেশালাইজড হাসপাতালের পরিচালক ও জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরীকে উকিল নোটিশ পাঠানো হয়। বাংলানিউজে মত প্রকাশে ডা. লেলিনকে উকিল নোটিশ।  

ডা. লেলিন চৌধুরীকে পাঠানো উকিল নোটিশের বাক্য এবং শব্দচয়নও একই রকম। একইসঙ্গে নোটিশের আইনজীবীও একই ব্যক্তি।

এ বিষয়ে অধ্যাপক ডা. এস এম সামসুজ্জামান বলেন, ‘লকডাউন’ হচ্ছে সংক্রমণ কমানোর পরীক্ষিত পদ্ধতি। বাংলাদেশে এর আগেও ‘লকডাউন’ দিয়ে করোনার প্রথম ঢেউ ভালো মতোই সামাল দেওয়া গিয়েছিল। শুধু বাংলাদেশ নয়, পৃথিবীর অন্যান্য দেশও ‘লকডাউন’ দিয়ে করোনার প্রাথমিক ধাক্কা সামলে অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

তিনি আরও বলেন, ‘লকডাউন’ যদি অকার্যকর হতো তাহলে সরকার ‘লকডাউন’ কার্যকর করতে এতো ব্যবস্থা গ্রহণ করতো না। সুতরাং এসব যারা করছে তারা স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও সংক্রমণ কীভাবে ছড়ায়, কীভাবে এটাকে নিয়ন্ত্রণ করা যায় এসব বিষয়ে কোনো কিছু না জেনেই অযৌক্তিক ও অবৈজ্ঞানিকভাবে নিজেদের সস্তা প্রচারণার জন্য এসব কথা বলছেন।  

ডা. সামসুজ্জামান বলেন, তাদের এসব অবৈজ্ঞানিক কথায় ‘লকডাউন’ বিষয়ে মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াতে পারে। ‘লকডাউন’ কার্যকর করতে সরকারের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। আমি সরকারের কাছে বলবো যারা সংক্রমণ কমাতে ‘লকডাউনের’ বিপক্ষে কথা বলছেন তাদের বিরুদ্ধে যেন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৯ ঘণ্টা, জুলাই ২৫, ২০২১
আরকেআর/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa