ঢাকা, সোমবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৯ আগস্ট ২০১৯
bangla news

নিয়মই অনিয়ম চুনারুঘাট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তারদের

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-২৪ ৮:১৫:১৩ পিএম
দুপুর পর্যন্ত খোঁজ মেলে না চিকিৎসকের। ছবি: বাংলানিউজ

দুপুর পর্যন্ত খোঁজ মেলে না চিকিৎসকের। ছবি: বাংলানিউজ

হবিগঞ্জ: প্রায় তিন লাখ মানুষের চিকিৎসাসেবার ভরসাস্থল হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। অনিয়ম আর বিভিন্ন সমস্যার মধ্য দিয়ে চলছে সরকারি এই হাসপাতাল। এতে চরম দুর্ভোগের শিকার সাধারণ জনগণ।

সরেজমিনে দেখা যায়, বেলা গড়িয়ে দুপুর হতে চললেও দেখা মেলে না চিকিৎসকের। একই অবস্থা জরুরি বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদেরও। স্বাস্থ্য বিভাগের নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে কর্মরত চিকিৎসক ও সংশ্লিষ্টদের খামখেয়ালিপনায় ব্যাহত হচ্ছে উপজেলাবাসী স্বাস্থ্যসেবা। কর্মকর্তা-কর্মচারী সংকট বিদ্যমান থাকাবস্থায় সংশ্লিষ্টদের অনিয়ম গিলে খাচ্ছে পুরো উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে।

চুনারুঘাটের চা শ্রমিক মুকুল মুণ্ড, রত্না ঝড়া ও ফাহিম মুণ্ডসহ স্থানীয় কয়েকজন বাংলানিউজকে জানায়, চিকিৎসকেরা নিজেদের ইচ্ছেমতো অফিস করেন। হাসপাতালে এসে চিকিৎসক না পেয়ে অন্যত্র চিকিৎসা করাতে হয়। এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করেন তারা।

দুপুর পর্যন্ত খোঁজ মেলে না চিকিৎসকের। ছবি: বাংলানিউজ

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গেটে বড় করে ৫০ শয্যার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স লেখা থাকলেও এতে রয়েছে ৩০ শয্যার সুবিধা। কাগজেপত্রে ৫০ শয্যার অনুমোদন থাকলেও বাস্তবে হয়নি এর কোনো বাস্তবায়ন হয়নি। নেই পর্যাপ্ত চিকিৎসকও।

এসব অভিযোগের কথা অস্বীকার করে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) মহিউদ্দিন চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, সরকারি বিভিন্ন কর্মসূচি থাকলে চিকিৎসকেরা বাইরে থাকেন। বাকি সময়গুলোতে পাঁচজন চিকিৎসক শিফট অনুযায়ী দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও ৫০ শয্যার সুবিধা নিশ্চিত করলে চলমান সমস্যাগুলো থাকবে না।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৪, ২০১৯
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   হবিগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-24 20:15:13