ঢাকা, বুধবার, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

ফিচার

ইতিহাসের এই দিনে

ইতিহাসবিদ অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়র জন্ম

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০২৪১ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০২১
ইতিহাসবিদ অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়র জন্ম

প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই সেখানে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

সোমবার, ১ মার্চ ২০২১, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৬ রজব ১৪৪২। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৬৪০: ভারতের কাছ থেকে ব্রিটিশদের মাদ্রাজে বাণিজ্যকেন্দ্র স্থাপনের অনুমতি লাভ।
১৮১৫: এলবা দ্বীপ থেকে পলায়নের পর নেপোলিয়ন বোনাপার্টের ১০০ দিনের শাসনকাল শুরু হয়।
১৯১২: আলবার্ট বেরি প্রথম উড্ডীয়মান বিমান থেকে প্যারাসুটের মাধ্যমে নামেন।
১৯১৪: চীন আন্তর্জাতিক পোস্টাল ইউনিয়নে যোগদান করে।
১৯১৯: কোরিয়ায় জাতীয় মুক্তি আন্দোলনের সূত্রপাত।
১৯৪৯: রাশিয়ান বিমান দুর্ঘটনায় ৩৮৫ জন নিহত।
১৯৭১: স্বাধীন বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গঠিত হয়।
১৯৭১: ইয়াহিয়া খান পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের অধিবেশন অনির্দিষ্টকাল স্থগিত ঘোষণা করেন।
১৯৮৫: বাংলাদেশে জেনারেল হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ রাজনৈতিক তৎপরতা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন।
১৯৯০: লিথুনিয়া সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভ করে।
১৯৯৭: বাংলাদেশে প্রথম টেলিফোন ব্যাংকিং সার্ভিস চালু।
২০০৮: গাজা উপত্যকায় ইসরাইলের অব্যাহত বিমান হামলায় ২ নারী ও ৪ শিশুসহ অন্তত ৩২ জন ফিলিস্তিনি নিহত হন।

জন্ম
১৮৬১: অক্ষয়কুমার মৈত্রেয়, প্রখ্যাত বাঙালি ইতিহাসবিদ ও সমাজকর্মী

তিনি ১৮৬১ সালের ১ মার্চ বাংলাদেশের নওগাঁ জেলার গৌরনাইয়ের বরেন্দ্র বর্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি রাজশাহী জেলার নেতৃস্থানীয় আইনজীবী ছিলেন। মানবিক জ্ঞানের বিভিন্ন শাখায়— বিশেষ করে ইতিহাস, সাহিত্য, ভাষা, সংস্কৃতি, চিত্রকলা এবং প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ে তার উল্লেখযোগ্য অবদান রয়েছে। ধারণা করা হয়, তার বিচক্ষণতায় প্রভাবিত হয়েই শরৎকুমার রায় বরেন্দ্র রিসার্চ সোসাইটি এবং বরেন্দ্র গবেষণা জাদুঘর প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

অক্ষয়কুমার মৈত্রেয় ১৮৯৯ সালে সিরাজউদ্দৌলা, মীর কাসিম, রানী ভবানী, সীতারাম, ফিরিঙ্গি বণিক, প্রমুখ ব্যক্তিকে নিয়ে ইতিহাস বিষয়ক প্রথম বাংলা ত্রৈমাসিক পত্রিকা ঐতিহাসিক চিত্র প্রকাশ করেন। এছাড়া, তিনি বিভিন্ন পত্রিকায় লেখালেখি করতেন।

তিনি বাংলার রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ইতিহাস, ঐতিহাসিক গুরুত্বপূর্ণ স্থান, শিল্পকলা ও পটশিল্প সম্পর্কে তথ্যবহুল নিবন্ধ প্রকাশ করেন। ১৯১২ সালে প্রকাশিত গৌড়লেখমালা নামের বইয়ে তিনি পাল রাজবংশের তাম্রশাসন ও শিলালিপি বাংলায় অনুবাদ ও সম্পাদনা করে প্রাচীন ব্রহ্মদেশের অজানা ইতিহাস তুলে ধরেন এবং এভাবে বাংলা ভাষায় ঐতিহাসিক গবেষণার নতুন দ্বার উন্মোচন করেন। তিনি ১৯০৪ সালে বঙ্গীয় সাহিত্য পরিষদের সহ-সভাপতি এবং ১৯১১ সালে বিশিষ্ট সদস্য নির্বাচিত হন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তাকে আধুনিক বাংলা লেখকদের মধ্যে শীর্ষস্থানীয় গণ্য করতেন।

ব্রিটিশ ঐতিহাসিকেরা নবাব সিরাজদ্দৌলাকে নির্দয়, উদ্ধত, স্বেচ্ছাচারী হিসেবে তুলে ধরে তাকে কলঙ্কিত করেছিলেন। অক্ষয়কুমার তার সিরাজদ্দৌলা (১৮৯৮) নামে গবেষণামূলক গ্রন্থে তাদের বিরুদ্ধে যুক্তি-প্রমাণ সহকারে লেখেন।

তিনি ১৯৩০ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

১৮৮৩: কুমুদরঞ্জন মল্লিক, বাঙালি কবি ও শিক্ষাবিদ
১৯১৮: খন্দকার আবদুল হামিদ, বাংলাদেশের সাংবাদিক ও রাজনীতিবিদ
১৯২৭: আশরাফ সিদ্দিকী, বাংলাদেশি সাহিত্যিক, লোকগবেষক ও বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক
১৯৩১: লামবের্তো দিনি, ইতালীয় রাজনীতিবিদ ও প্রধানমন্ত্রী
১৯৪০: শাফাত জামিল বীর বিক্রম, মুক্তিযোদ্ধা ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা
১৯৪৩: সাহারা খাতুন, বাংলাদেশি আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী; শাহজাহান সিরাজ, বাংলাদেশি রাজনীতিবিদ ও মুক্তিযোদ্ধা, সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী।
১৯৬৫: মতিউর রহমান মল্লিক, বাঙালি কবি ও সাহিত্যিক।

মৃত্যু
১৯২৪: গোপীনাথ সাহা, ব্রিটিশবিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের শহীদ বাঙালি বিপ্লবী
১৯১১: ইয়াকোবুস হেনরিকুস ফান্ট হফ, ডাচ জৈব রসায়নবিদ, রসায়নে প্রথম নোবেল পুরস্কার বিজয়ী
১৯৪৩: আলেকজেন্ডার ইরসিন, ফ্রান্স-সুইস চিকিৎসক ও ব্যাকটেরিওলজিস্ট এবং ইরসিনিয়া পেস্টিসের আবিষ্কারক
১৯৯৫: জর্জেস জে এফ কোহলার, জার্মান জীববিজ্ঞানী, চিকিত্সাবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী
২০১৯: পলান সরকার, বাংলাদেশি সমাজকর্মী

বাংলাদেশ সময়: ০২৪০ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০২১
এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa