ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

ফিচার

ইতিহাসের এই দিনে

ওয়াল্ট ডিজনির জন্ম-সোহরাওয়ার্দীর প্রয়াণ

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-০৫ ০৫:০৯:৩৪ এএম
ওয়াল্ট ডিজনির জন্ম-সোহরাওয়ার্দীর প্রয়াণ

ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার আশীর্বাদ-অভিশাপ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সব সময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

০৫ ডিসেম্বর ২০১৯ বৃহস্পতিবার। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

১৩৬০- ফ্রান্সের মুদ্রা ফ্রাঁ চালু হয়।
১৪৫৬- নেপলসে ভয়াবহ ভূমিকম্পে ৩৫ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটে।
১৭৫৭- প্রুশিয়ার সেনাবাহিনীর কাছে অস্ট্রিয়া পরাজিত হয়।
১৭৬৬- লন্ডনে প্রথম নিলাম ডাক শুরু হয়।
১৭৯১- অস্ট্রীয় মিউজিক কম্পোজারভোলফগাং আমাদেউস মোৎসার্ট ভিয়েনায় ৩৫ বছর বয়সে মারা যান।
১৭৯২- জর্জ ওয়াশিংটন দ্বিতীয়বারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।
১৮০৪- টমাস জেফারসন দ্বিতীয়বারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।
১৮১২- নেপোলিয়ন বোনাপার্ট রাশিয়ায় লজ্জাজনক পরাজয়ের পর ফ্রান্সে ফিরে যান।
১৮৪৬ - দুদু মিয়া নীলকুঠি আক্রমণ করেন।
১৮৫৪- অ্যারোন অ্যালেন রিভলবিং থিয়েটার চেয়ার প্যাটেন্ট করেন।
১৮৭৯- প্রথম স্বয়ংক্রিয় টেলিফোন সুইচিং সিস্টেম প্যাটেন্ট করা হয়।
১৮৯৩- চীন আর ব্রিটেনের মধ্যে ‘চীন-ব্রিটেন সম্মেলন তিব্বত-ভারত চুক্তি’ স্বাক্ষরিত হয়।
১৯১৭- ফিনল্যান্ড স্বাধীনতা লাভ করে।
১৯১৭- রাশিয়ার বিপ্লবী সরকার ও জার্মানির মধ্যে সন্ধি চুক্তি হয়।
১৯২৯- আইরিনা স্বাধীনতা লাভ করে।
১৯৩২- জার্মান বংশোদ্ভুত বিজ্ঞানী আইনস্টাইন আমেরিকার ভিসা পান।
১৯৩৩- উটাহ ৩৬তম অঙ্গরাজ্য হিসেবে আমেরিকার সঙ্গে যুক্ত হয়।
১৯৩৬- সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের নতুন সংবিধান অনুমোদিত হয়। এর মাধ্যমে ১৯২৪ সালে প্রণীত ফেডারেল সংবিধান বাতিল হয়ে যায়।
১৯৪১- দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইংল্যান্ড ফিনল্যান্ড, হাঙ্গেরী ও রোমানিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে।
১৯৪৩- জাপানী বোমারু বিমান কলকাতায় বোমা বর্ষণ করে।
১৯৫০- কোরিয় যুদ্ধ চলাকালে চীনের সৈন্যরা উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ং-এ প্রবেশ করে।
১৯৫৫- এডগার নিক্সন ও রোসা পার্কস আমেরিকায় বর্ণবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামে মন্টেগোমারীতে বাস বয়কট আন্দোলন শুরু করেন। সে সময় নিক্সনকে গ্রেফতার করা হয়।
১৯৬৯- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পূর্ব-পাকিস্তানের নামকরণ করেন ‘বাংলাদেশ’।
১৯৭১- ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের আনুষ্ঠানিক যুদ্ধ ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ কমান্ড গঠন করে মিত্রবাহিনী নাম গ্রহণ করে।
১৯৭১- পাক হানাদার বাহিনীর কবল থেকে মৌলভীবাজারের জুড়ী এলাকাকে (বর্তমান জুড়ী উপজেলা) শত্রুমুক্ত করা হয়।
১৯৭৭- মিশরের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট আনোয়ার সাদাত সিরিয়া, লিবিয়া, আলজেরিয়া ও দক্ষিণ ইয়েমেনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেন।
১৯৮৫- যুক্তরাজ্য ইউনেস্কোর সদস্যপদ প্রত্যাহার করে।
১৯৮৭- পানামার জাতীয় পতাকা ধারী একটি মালবাহী জাহাজ স্পেনের উত্তর উপকূলীয় ফিনিস্টেলে জলসীমা থেকে প্রায় ১৫ নটিকল-মাইল দূরে যায়। জাহাজের ২৩ জন চীনা নাবিক প্রাণ হারান।
১৯৯২- আলবেনিয়াকে মুসলিম রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করা হয়।
১৯৯৯- যানজট এড়াতে ব্যাংককে আকাশ ট্রেন সার্ভিস চালু।
১৯৯৫- হংকংয়ের সবোর্চ্চ আদালতে প্রথমবারের মতো চীনা ভাষায় মামলা পরিচালিত হয়।
১৯৯৬- ম্যাডেলিন অলব্রাইট যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের প্রথম নারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন।

জন্ম
১৮৯০- অস্ট্রিয়ান-আমেরিকান চলচ্চিত্র নির্দেশক, চলচ্চিত্রকার ফ্রিৎস ল্যাং।
১৯০১- মার্কিন চলচ্চিত্র প্রযোজক, নির্দেশক, কাহিনীকার, নেপথ্য কণ্ঠশিল্পী ও অ্যানিমেটর ওয়াল্ট ডিজনি।

তিনি পৃথিবীর প্রথম অ্যানিমেশন প্রোগ্রামার এবং বিংশ শতাব্দীর অন্যতম প্রভাবশালী আর সফল প্রযুক্তিক ভাবনার অধিকারী। ১৯২৮ সালে ডিজনি তার বিখ্যাত চরিত্র ‘মিকি মাউজ’ সৃষ্টি করেন। ১৯৫৫ সালে তিনি ডিজনিল্যান্ড প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৬৬ সালের ১৫ ডিসেম্বর ওয়াল্ট ডিজনি মৃত্যুবরণ করেন।

১৯০১- নোবেলজয়ী জার্মান পদার্থবিজ্ঞানী ওয়ার্নার হাইজেনবার্গ।
১৯৩২- মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানী শেল্ডন গ্ল্যাশো।

মৃত্যু
১৭৯১- অস্ট্রিয়ান সুরকার ভোলফগাং আমাদেউস মোৎসার্ট।
১৮৭০- বিখ্যাত ফরাসি ঔপন্যাসিক আলেক্সাঁদ্র দ্যুমা।
১৯২৬- ফ্রান্সের বিখ্যাত ধারণাবাদী (ইম্প্রেশনিস্ট) চিত্রশিল্পী ক্লোদ মনে।
১৯৫০- বাঙালি রাজনৈতিক নেতা এবং দার্শনিক অরবিন্দ ঘোষ।
১৯৫১- খ্যাতিমান ভারতীয় চিত্রশিল্পী এবং লেখক অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর।
১৯৬৩- বিখ্যাত বাঙালি রাজনীতিবিদ ও আইনজীবী হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী।

১৮৯২ সালের ৮ সেপ্টেম্বর পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুরের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে তার জন্ম। ১৯৫৪ সালের নির্বাচনে মওলানা ভাসানী, আবুল কাশেম (একে) ফজলুল হক ও হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর গঠিত যুক্তফ্রন্ট অভূতপূর্ব জয়লাভ করে। এরপর বগুড়ার মন্ত্রিসভায় আইনমন্ত্রী নিযুক্ত হন তিনি। ১৯৫৫ সালের ১১ আগস্ট থেকে ১৯৫৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনি পাকিস্তান আইনসভায় বিরোধীদলীয় নেতা ছিলেন। ১৯৫৬ সালে পাকিস্তানের প্রথম সংবিধান প্রণয়নে তার ভূমিকা উল্লেখযোগ্য। এছাড়া তিনি ১৯৫৬ সালের ১২ সেপ্টেম্বর থেকে ১৯৫৭ সালের ১১ অক্টোবর পর্যন্ত পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। গণতান্ত্রিক রীতি ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকায় সুধী সমাজ কর্তৃক ‘গণতন্ত্রের মানসপুত্র’ বলে আখ্যায়িত হন তিনি। পাকিস্তান নিরাপত্তা আইনে রাষ্ট্রবিরোধী কাজের অপরাধ দেখিয়ে তাকে ১৯৬২ সালের ৩০ জানুয়ারি গ্রেফতার করা হয়। ১৯৬২ সালের ১৯ আগস্ট তিনি মুক্তি পান। স্বাস্থ্যগত কারণে ১৯৬৩ সালে দেশের বাইরে যান এবং লেবাননের রাজধানী বৈরুতে অবস্থানকালে তিনি মারা যান।

বাংলাদেশ সময়: ০০০৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৯
টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa