bangla news

দর্শনার্থীদের জন্য বঙ্গবন্ধুর পূর্বপুরুষের স্মৃতি

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৮-২৮ ১২:৩৭:০২ এএম

টুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পিতৃপুরুষের পুরনো ও পরিত্যক্ত কাচারি ভবন সংস্কার করেছে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। সম্প্রতি বঙ্গবন্ধু সমাধিসৌধের দণি গেটসংলগ্ন কাচারি ভবন সংস্কার শেষে দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

টুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পিতৃপুরুষের পুরনো ও পরিত্যক্ত কাচারি ভবন সংস্কার করেছে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। সম্প্রতি বঙ্গবন্ধু সমাধিসৌধের দণি গেটসংলগ্ন কাচারি ভবন সংস্কার শেষে দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। মোগল ও ব্রিটিশ স্থাপত্যশিল্পের আদলে নির্মিত উন্মুক্ত খিলানবিশিষ্ট কাচারি ভবনের পুরনো সবকিছুই ঠিক রেখে সংস্কারকাজ করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে আসা দর্শনার্থীরা সদ্য সংস্কার করা কাচারি ভবনের সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন। জানতে পারছেন বঙ্গবন্ধু-পরিবারের ইতিহাস। দেড়শ বছর আগে সম্ভ্রান্ত পরিবারগুলোর বাড়ির সামনে এ ধরনের কাচারি নির্মাণের প্রচলন ছিল। পুরনো এ কাচারি ভবন টুঙ্গীপাড়ার সম্ভ্রান্ত শেখ পারিবারে গৌরবময় ইতিহাস ও ঐতিহ্য বহন করে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে।

প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের এপ্রিল মাসে পরিত্যক্ত এ স্থাপনাটির ১২ লাখ ২০ হাজার টাকা ব্যয়ে সংস্কারকাজ শুরু  হয়। জুন মাসের মাঝামাঝি সংস্কারকাজ শেষে দর্শনার্থীদের জন্য এটি খুলে দেওয়া হয়। প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের আঞ্চলিক পরিচালক আবদুল খালেক জানান, প্রায় দেড়শ বছর আগে বর্গা, পোড়ামাটির টালি, বিভিন্ন আকৃতির ইট, চুন, সুরকি, কাঠের কড়ি দিয়ে এ ভবন নির্মাণ করা হয়। সে সময় মোগল ও ব্রিটিশ স্থাপত্যরীতির মিশ্রণে উন্মুক্ত খিলানবিশিষ্ট যে ভবন নির্মাণ করা হয়েছিল, সেগুলো ঠিক রেখেই ভবনটির সংস্কার করা হয়েছে। পোড়া মাটির রঙ করা হয়েছে পুরনো আদলে।

একজন দর্শনার্থী সাতীরার শ্যামনগনর উপজেলার বাসিন্দা ওমর আলী শেখ (৪৫) বলেন, কাচারি ভবন আমাকে মুগ্ধ করেছে। কাচারি ভবনের পাশে বঙ্গবন্ধুর পিতৃপুরুষের পুরনো বাড়ির ধ্বংসাবশেষ পড়ে রয়েছে। এগুলো সংস্কার করা হলে শেখ পরিবারে পুরনো বাড়ির সৌন্দর্য আরো বৃদ্ধি পাবে। আমি চাই পুরো বাড়িটির সংস্কার করা হোক।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ২২০৫, আগস্ট ২৮, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-08-28 00:37:02