ঢাকা, বুধবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

ফিচার

বয়ামের মধ্যে ১০ দিন

আহমেদ জুয়েল | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৪৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১৬, ২০১০
বয়ামের মধ্যে ১০ দিন

জঙ্গলে ময়লার ভাগাড়ে পড়ে ছিল মুখ খোলা একটি প্লাস্টিকের বয়াম। তার মধ্যে সামান্য একটু খাবারও ছিল।

সেই খাবার খেতে গিয়েই বাঁধে বিপত্তি। পাকা ১০ দিন থাকতে হয় সেই বয়ামের মধ্যে মাথা ঢোকানো অবস্থায় একেবারে দানাপানিহীন অসহ্য এক যন্ত্রণার মধ্যে। গ্রামবাসীরা যদি তাকে না দেখত তাহলে হয়তো জানটাই চলে যেত। ভাগ্যগুণেই সে বেঁচে গেছে।

জীবন-মরণের দোলাচল থেকে বেঁচে যাওয়া ওই ভালুকছানাটাকে আদর করে নাম রাখা হয়েছে ‘জারহেড’। সহজ বাংলায় বলা যায় ‘বয়ামমাথা’। বয়ামের মধ্যে মাথা নিয়ে ১০ দিন কাটিয়েছে বলেই মজা করে ওর এমন নাম দেওয়া হয়েছে।

বয়ামমাথা বাস করে ফোরিডার এক জঙ্গলে। মা আর তিন ভাইবোনের সঙ্গে সে জঙ্গলে ঘুরে বেড়ায়। ক্ষুধা পেলে খায়, ঘুমানোর দরকার হলে সবাই মিলে ঘুমায়। কিন্তু হঠাৎই তার ছোট্ট জীবনে নেমে আসে বিপত্তি। ক্ষুধার জ্বালায় ময়লার মধ্যে পড়ে থাকা প্লাস্টিকের বয়ামের মধ্যে লেগে থাকা একটুখানি খাবারের জন্য কিছুটা জোর করেই সে মাথা ঢুকিয়ে দেয়। তারপর আর যায় কোথায়? বয়াম থেকে কিছুতেই মাথা বের হয় না। সারাদিন দৌড়াদৌড়ি, মাটিতে মাথা ঠোকাঠুকি করেও কোনো লাভ হয়নি। বয়ামের মধ্যে মাথা নিয়েই তাকে ঘুরতে হয়েছে মা আর ভাইবোনদের সঙ্গে। ক্ষুধায় পেট জ্বলে গেলেও খেতে পারেনি খাবার কিংবা পানি। এভাবে না খেয়ে অন্তত আটদিন কাটানোর পর এলাকার লোকজন দেখতে পায় ভালুকের ওই ছানাটি বয়ামের মধ্যে মাথা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। খাবার ও পানি খেতে না পাওয়ায় সে দুর্বল হয়ে পড়েছে। তারা বুঝতে পারেন এভাবে থাকলে নিশ্চয়ই ভালুকছানাটি মারা পড়বে। তাই বন বিভাগের লোকজনকে তারা খবর দেন। কিন্তু এর মধ্যে ভালুকছানা তার মায়ের সঙ্গে বনের মধ্যে হারিয়ে যায়। সবাই তখন ধরে নিয়েছিল ভালুকছানাটি মরে গেছে। কিন্তু দু দিন খোঁজাখুঁজির পর আবার সে লোকালয়ের কাছাকাছি এলে বন বিভাগের লোকজন তাকে ধরে বয়ামের বন্দি জীবন থেকে মুক্ত করে দেন।

জারহেড এখন মুক্ত। এই কদিনে ও নিশ্চয়ই বুঝে গেছে মুক্তির আনন্দ কতটা মধুর। বেচারা ভালুকছানা ‘বয়ামমাথা’। মানুষের কাছাকাছি থাকলে যে কত বিপদ হতে পারে তা ও বুঝে গেছে। আর এটা নিশ্চিত যে ও যতদিন বেঁচে থাকবে আর কোনোদিন বয়ামের মতো কোনোকিছুর ধারেকাছেও যাবে না।

সূত্র: বিবিসি অনলাইন

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১১১৮, আগস্ট ১৬, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa