ঢাকা, শনিবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ জুন ২০২২, ২৫ জিলকদ ১৪৪৩

ফিচার

কাঠ-পেরেকের বঙ্গবন্ধু

সাব্বির আহমদ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৪৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৫
কাঠ-পেরেকের বঙ্গবন্ধু ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: বাংলাদেশের স্রষ্টাকে শিল্পকর্মের মাধ্যমে অনেকভাবেই ফুটিয়ে তুলেছেন অনেকে। প্রায় সব শিল্পীর তুলির আঁচড় পড়েছে স্বাধীন বাংলাদেশের এই স্থপতির অবয়বে।

এবার প্লাইউড বোর্ডের ফ্রেমে কাঠের টুকরো ও পেরেক দিয়ে তার প্রতিকৃতি তৈরি করেছেন একজন শিল্পী।

এবারের মহান বিজয় দিবসের প্যারেড গ্রাউন্ডে ব্যবহৃত কাঠের ছোট ছোট টুকরো জড়ো করে এই মহান নেতার শিল্পকর্ম এঁকেছেন শিল্পী কুয়াশা বিন্দু। কাঠ আর পেরেকে জাতির জনকের ছবি ফুটিয়ে তুলেছেন তিনি।

শিল্পকলা একাডেমীর জাতীয় চিত্রশালায় একটি প্রদর্শনীতে স্থান পেয়েছে তার এ চিত্রকর্ম। রোববার (২৭ ডিসেম্বর) থেকে শুরু হওয়া পাঁচ দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী চলবে বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) পর্যন্ত।

এ শিল্পকর্মে অনেকের সঙ্গে মুগ্ধ হয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরও। সেতুমন্ত্রী শিল্পকর্মটির পাশে দাঁড়িয়ে ছবিও তুলেছেন।

২০১৩ সালে চারুকলা থেকে মাস্টার্স শেষ করেছেন কাঠ পেরেকের বঙ্গবন্ধুর শিল্পী গাজীপুরের জয়দেবপুরের কুয়াশা। তার পড়ার বিষয় ছিলো সিরমিকস শিল্পকর্ম। রাজধানীর মিরপুরে পিনহোল নামে একটি আর্ট অ্যান্ড ক্রাফটের ক্রিয়েটিভ ডিজাইনার কুয়াশা বিন্দু।

প্রায় দুইশ’র মতো শিল্পকর্ম আছে তার। আগামী ফেব্রুয়ারিতে একক প্রদশর্নীর প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে প্যারেড গ্রাউন্ডের কর্মসূচির ইভেন্ট ডিজাইনার ছিলেন কুয়াশা বিন্দু। সেখানে ডিসপ্লে বোর্ড ও গেট তৈরি শেষে অনেকগুলো কাঠের টুকরো অব্যবহৃত পড়ে থাকে। সেগুলো তুলে এনে তিনি গড়েছেন বঙ্গবন্ধুকে।

প্রায় ২৫ দিন লেগেছে কাঠ-পেরেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ফুটিয়ে তুলতে। ব্যবহার করেছেন তিন হাজারের বেশি কাঠের টুকরো। পাশে ফ্রেম হিসেব ব্যবহার করেছেন প্লাইউড বোর্ড। বঙ্গবন্ধুর চশমার কালো ফ্রেম ফুটিয়ে তুলেতে ব্যবহার করেছেন পোড়ানো কাঠের টুকরো। তার অমূল্য এ শিল্পকর্মের আক্ষরিক একটা দামও আছে। সেটা প্রায় পৌনে ৩ লাখ টাকা।

কুয়াশা বাংলানিউজকে বলেন, ‘আসলে মজা করতে করতে কাজটা করে ফেলেছি। তবে অনেক শ্রম লেগেছে। এটা এতো ভারি যে, ১০ থেকে ১২ জন লোক লাগে এটাকে তুলতে। ওজন হিসেবে এটা হবে দুই থেকে আড়াই মণ’।

তিনি বলেন, ‘চারুকলায় ব্লক এবং টাইলস দিয়ে সিরামিকস মিডিয়ার শিল্পকর্ম ছিলো আমার পড়ার বিষয়। সেখান থেকেই কাঠ দিয়ে এমন শিল্পকর্মের আইডিয়া পেয়েছি’।

শিল্পকর্মে কাঠের এমন ব্যবহার একটি নতুন মাধ্যম জানিয়ে কুয়াশার শিক্ষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার সহযোগী অধ্যাপক দেবাশীষ পাল বাংলানিউজকে বলেন, এটা নি:সন্দেহে একটা চমৎকার শিল্পকর্ম।

বাংলাদেশ সময়: ১০৪৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৫
এসএ/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa