ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

অসুস্থ শকুন উদ্ধারের পর বন বিভাগে হস্তান্তর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৫২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩১, ২০২২
অসুস্থ শকুন উদ্ধারের পর বন বিভাগে হস্তান্তর

কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার পশ্চিম কালুডাঙ্গা মধ্যপাড়া গ্রাম থেকে উদ্ধার হওয়া সাড়ে ছয় কেজি ওজনের একটি শকুনকে বন বিভাগে হস্তান্তর করেছে স্থানীয়রা।

রোববার (৩০ জানুয়ারি) দিনগত রাতে উদ্ধারকৃত শকুনটি নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে উলিপুর উপজেলা বন বিভাগ।

এর আগে সকালে গুনাইগাছ ইউনিয়নের পশ্চিম কালুডাঙ্গা মধ্যপাড়া গ্রামের একটি মাঠ থেকে শকুনটি উদ্ধার করে স্থানীয়রা।  

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের পশ্চিম কালুডাঙ্গা মধ্যপাড়া গ্রামের শফিকুল ইসলামের বাড়ি সংলগ্ন মাঠে সকালে একটি শকুন উড়ে এসে পড়লে তাকে ধরে বাড়ির উঠানে বেঁধে রাখে স্থানীয়রা। শকুনটির উচ্চতা দুই ফুটের বেশি, দৈর্ঘ্য প্রায় ৯ ফুট (পাখা মেলা অবস্থায়), ওজনে সাড়ে ছয় কেজি।  

এলাকাবাসীদের ধারণা, শকুনটি কিছুটা অসুস্থ হওয়ায় উড়তে না পেরে মাঠে থেকে যায়। এ সময় শকুনটির সামনে দুটি মুরগির বাচ্চা দিলে তা খেয়ে নেয়। শকুনটি দল বেঁধে পার্শ্ববর্তী ভারতের পাহাড়ি এলাকা থেকে আসতে পারে, কোনো কারণে অসুস্থ হয়ে পড়ায় আর যেতে পারেনি।  

স্থানীয় অধিবাসী সফিকুল ইসলাম বলেন, আগে আমাদের এলাকায় অনেক শকুন দেখা গেলেও বিগত প্রায় ৩০ বছর ধরে চোখে পড়ে না। আগে যখন আমাদের যুবক বয়স তখন দেখেছি, অসুস্থ হয়ে কোনো গরুর মৃত্যু হলে খোলা জমিতে বা বাঁশঝাড়ে ফেলে দেওয়া হলে শকুনের দল উড়ে এসে খেয়ে ফেলতো।  

উলিপুর উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা ফজলুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, পশ্চিম কালুডাঙ্গা মধ্যপাড়া গ্রামের মানুষ শুকনটিকে সকালে উদ্ধার করে। পরে রাতেই শকুনটি বন বিভাগের তত্ত্বাবধায়নে নেওয়া হয়। শকুনটি কিছুটা অসুস্থ। সুস্থ করার পর অবমুক্ত করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০৫০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩১, ২০২২
এফইএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa