ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮, ০৬ মে ২০২১, ২৩ রমজান ১৪৪২

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

বনমোরগ ও ডাহুক ধরার ৫ ফাঁদ পুড়িয়ে ধ্বংস  

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৮, ২০২১
বনমোরগ ও ডাহুক ধরার ৫ ফাঁদ পুড়িয়ে ধ্বংস
 

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলায় বনমোরগ ও ডাহুকসহ বিভিন্ন পাখি ধরার পাঁচটি ফাঁদ আগুনে পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। বনবিভাগের সহায়তা নিয়ে পরিবেশবাদী সংগঠন মিতা ফাউন্ডেশন এগুলো ধ্বংস করে।

তবে যারা ফাঁদ পেতেছিলেন; তাদের শনাক্ত করা যায়নি।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) দারাগাঁও চা বাগানের হাতিমারা এলাকায় বনবিভাগের কর্মকর্তা এবং মিতা ফাউন্ডেশনের সদস্যদের উপস্থিতিতে আগুন লাগিয়ে ফাঁদগুলো পুড়িয়ে ফেলা হয়। এ সময় বনবিভাগের কালেঙ্গা রেঞ্জ কর্মকর্তা খলিলুর রহমান, রশিদপুর বিটের কর্মকর্তা শাহিনুল হক, ফরেস্টগার্ড রামেশ্বর গড়, মিতা ফাউন্ডেশন দারাগাঁও চা বাগান কমিটির আহ্বায়ক রবি কন্তা, পিয়াস কন্তা, শামিম খান, নাসির খানসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) রশিদপুর বিটের বনদুর্গা নামক দুর্গম পাহাড়ি এলাকা থেকে বনমোরগ ধরার চারটি ফাঁদ ও ডাহুক পাখি ধরার একটি ফাঁদ জব্দ করেন মিতা ফাউন্ডেশন দারাগাঁও চা বাগান কমিটির সদস্যরা।  

ফাঁদের মালিক বা পাখি শিকারিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে কি না জানতে চাইলে সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) এসএম সাজ্জাদ হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, যারা পাখি শিকারের জন্য ফাঁদ পেতেছিলেন, তারা অপরাধী। তাদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১২০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৮, ২০২১
এসআই


 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa