bangla news

পরিচালক অরিন্দমের শীলের বিরুদ্ধে অশালীন ব্যবহারের অভিযোগ

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-১৩ ২:০৪:৫৩ পিএম
অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র ও পরিচালক অরিন্দম শীল

অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র ও পরিচালক অরিন্দম শীল

হলিউড, বলিউডের পর এবার #মিটু ঝড় আছড়ে পড়লো কলকাতায়। পরিচালক, প্রযোজক ও অভিনেতা অরিন্দম শীলের বিরুদ্ধে অশালীন আচরণের অভিযোগ আনলেন অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র। চিত্রনাট্য শোনানোর অছিলায় অফিসে ডেকে তাকে আলিঙ্গন করে খারাপ ইঙ্গিত দেন পরিচালক, অরিন্দম শীলের বিরুদ্ধে এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন এই অভিনেত্রী।

এই সংক্রান্ত একটি দীর্ঘ ফেসবুক পোস্টে অভিনেত্রী লেখেন, ‘এটা কোনও খবর নয়, এটি অভিনেত্রী জীবনের আক্ষেপ যে এমন একটি ঘটনা আমার সঙ্গে ঘটেছিল। খারাপ লাগছে এটা ভেবে বহু কষ্টে নিজের একটা জায়গা তৈরি করেছি এই ইন্ডাস্ট্রিতে, সেই জায়গাটাই কিছু মানুষ ক্ষুদ্র করে দিতে চেয়েছিল। চুপ করে ছিলাম, নিজেকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করছিলাম। তারপর যেদিন পারলাম, সেদিন সকলের সামনে তুলে ধরলাম মনের কষ্টের এক টুকরোকে। মনে হয়েছিল, এটা যদি না পারি তাহলে ভবিষ্যৎ আমাকে প্রশ্ন করবে কেন একটা সুন্দর সমাজ তৈরি করতে পারিনি আমরা? হাজার স্বপ্ন নিয়ে যে মেয়েরা অভিনেত্রী হতে চায় তাদের কেন আমি শেখাব না কোনটা ভাল আর মন্দ!..’

রূপাঞ্জনা বলেন, ‘অরিন্দম পরিচালিত ‘ভূমিকন্যা’ সিরিয়ালের প্রথম এপিসোডের স্ক্রিপ্ট পড়ে শোনানোর জন্য আমাকে তার অফিসে ডাকা হয়েছিল। মনে আছে, তখন পূজা আসছে আসছে এমন একটা সময়। সম্ভবত তৃতীয়া। বিকেল পাঁচটার সময় আমায় পৌঁছতে বলা হয়েছিল। সেই মতো অরিন্দমের অফিসে যেতেই দেখি অফিস ফাঁকা, শুধু প্রোডাকশনের ছেলে ছিল। বিকেল পাঁচটার সময় অফিস ফাঁকা দেখে প্রথমে একটু অস্বস্তি হয়েছিল। ঢুকতেই তিনি জিজ্ঞসা করেন, ‘চা খাবি?’ চায়ের লোকটি চা দিয়ে যাওয়ার পরেই সেখান থেকে কায়দা করে তাকে সরে যেতে বলেন উনি। তখন অফিসে শুধু আমরা দু’জন। আমার ভীষণ আনক্যানি ফিল (অস্বস্তি) হচ্ছিল। আর তার চেম্বারটা এমন ভেতরে যে চিৎকার করলেও কেউ শুনতে পাবে না। হঠাৎই নিজের জায়গা থেকে উঠে একটু কাছে এসে বসলেন। বলে বোঝাতে পারব না। তার বসা, কথা বলা...ভীষণ ইঙ্গিতপূর্ণ। হাত বাড়িয়ে আমাকে ডাকছে।’

রূপাঞ্জনা আরও বলেন, ‘বসার আগে আমার মাথায় হাত বুলোচ্ছেন...কখনও পিঠে। মনে হচ্ছিল এই বার বুঝি আমি রেপড হয়ে যাব। এরপর আমি আর থাকতে না পেরে তাকে বেশ স্পষ্ট করে গোটা গোটা ভাষায় বলি, ‘অরিন্দমদা, প্লিজ টেল মি অ্যাবাউট দ্য স্ক্রিপ্ট।’ উনি বোধহয় তখন বুঝতে পারলেন, যে সব নারীর সঙ্গে উনি সচরাচর এই ধরনের ট্রিক খেলে থাকেন আমি তাদের মধ্যে পড়ি না।’

রূপাঞ্জনার কথা অনুযায়ী, এরপর আচমকাই ‘ডিরেক্টর মোডে’ চলে যান অরিন্দম। স্ক্রিপ্ট বোঝাতে শুরু করেন। 

‘এরপর পাঁচ মিনিটের মধ্যে আমি জানিনা কীভাবে, কোথা থেকে তার স্ত্রী সেখানে উপস্থিত হন। আমাকে দেখে তিনিও অপ্রস্তুত। তিনি বোধহয় জানতেন না, তার স্বামী সেই সময় আমাকে তার অফিসে ডেকেছেন। আমাদের তিনজনের মধ্যে তখন অদ্ভুত নিস্তব্ধতা। সেকেন্ডের মধ্যে বউভক্ত হয়ে গেলেন তিনি। যে মানুষটা কিছুক্ষণ আগে আমায় নোংরা ইঙ্গিত করছিলেন তিনি হঠাৎ করে কীভাবে স্ত্রীকে দেখে একদম পাল্টি খেয়ে গেলেন আমি বুঝতেই পারছিলাম না। এরপর আমাকে তিনি ড্রপও করে দেন’, যোগ করেন রূপাঞ্জনা। 

সেখান থেকে বেরিয়ে কেঁদে ফেলেছিলেন অভিনেত্রী। কিন্তু এত দিন চুপ ছিলেন কেন? জবাবে রূপাঞ্জনা জানান, যে চ্যানেলে ‘ভূমিকন্যা’ সম্প্রচারিত হত সেই চ্যানেলের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ ছিলেন তিনি। যাতে চ্যানেলের ইমেজের কোনও ক্ষতি না হয় সে জন্যই এত দিন চুপ ছিলেন।

তবে, রূপাঞ্জনার সব অভিযোগ অস্বীকার করে পরিচালক অরিন্দম শীল পাল্টা দাবি করেছেন, পলিটিকাল স্টান্ট করছেন রূপাঞ্জনা। হঠাৎ করে কেন এরকম করছেন অভিনেত্রী সেটা তিনি বুঝে উঠতে পারছেন না। অরিন্দম শীল দাবি করেছেন, যেদিনের কথা রূপাঞ্জনা বলছেন সেদিন পরে তাকে এসএমএস করেছিলেন অভিনেত্রী। রূপাঞ্জনা মিথ্যা কথা বলছেন বলে দাবি করেছেন পরিচালক অরিন্দম শীল।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ৩০ জুলাই থেকে ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত স্টার জলসায় সম্প্রচারিত হয়েছে ভূমিকন্যা। এই মেগা সিরিয়ালের প্রযোজক ছিলেন অরিন্দম শীল।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০২০
এমকেআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   টলিউড
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-13 14:04:53