ঢাকা, শনিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

নির্বাচন

নেত্রকোনায় আ.লীগ ৪, স্বতন্ত্র ১

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৪৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৫
নেত্রকোনায় আ.লীগ ৪, স্বতন্ত্র ১

নেত্রকোনা: নেত্রকোনার পাঁচ পৌরসভার মধ্যে নির্বাচনী ভোট যুদ্ধে চার পৌরসভায় জয়লাভ করেছেন আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী।   বাকি একটিতে জয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী।



বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় মদন পৌরসভা নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তারা বেসরকারি মেয়র নির্বাচিত হওয়ার ঘোষণা দেন।

এরমধ্যে নেত্রকোনা সদর পৌরসভায় আওয়ামী লীগ সমির্থত নৌকা প্রতীক নিয়ে নজরুল ইসলাম খান ২৬ হাজার ৬৬৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী এস এম মনিরুজ্জামান দুদু পেয়েছেন ১১ হাজার ৮৪৪ ভোট।

নেত্রকোনা পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ৫৮ হাজার ৪১৪ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ২৯ হাজার ৬৬৯ ও পুরুষ ২৮ হাজার ৭৪৫ জন।  

মদন পৌরসভায় নারকেল গাছ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী দেওয়ান মো. আব্দুল হান্নান তালুকদার ৩ হাজার ৭৯১ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। আর ধানের শীষ প্রতীকের তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মাশরিকুর রহমান পেয়েছেন ১ হাজার ৭৫০ ভোট।

এই পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা ১০ হাজার ৮৬৯ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৫ হাজার ৪৪০ ও নারী ৫ হাজার ৪২৯ জন।

মোহনগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাডভোকেট লতিফুর রহমান রতন ৮ হাজার ৪১৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকের বিএনপি দলীয় প্রার্থী মাহাবুবুন নবী শেখ পেয়েছেন ৪ হাজার ৩৬২ ভোট।

এই পৌরসভায় মোট ভোটার ১৮ হাজার ১৮১ জন। পুরুষ ৮ হাজার ৭০৪ ও ৯ হাজার ৪৭৭ জন নারী ভোটার।

কেন্দুয়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মো. আসাদুল হক ভূঁইয়া জয়ী হয়েছেন ৭ হাজার ৭১২ ভোট পেয়ে।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী শফিকুল ইসলাম পেয়েছেন ২ হাজার ৭৩৫ ভোট।
মোট ভোটার সংখ্যা ১৩ হাজার ৬৪৬ জন। এরমধ্যে পুরুষ ৬ হাজার ৬৮২ ও নারী ৬ হাজার ৯৬৪ জন।

দুর্গাপুর পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুস ছালাম জয়ী হয়েছেন ৭ হাজার ৮৩৭ ভোট পেয়ে।

নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকের বিএনপি দলীয় প্রার্থী মো. জামাল উদ্দিন ৪ হাজার ৩১৮ ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।

এই পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ১৬ হাজার ৪৫২ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ৮ হাজার ৫৫ জন ও নারী ৮ হাজার ৩৯৭ জন।

ভোটগণণা শেষে নির্বাচনী এসব ফল নিশ্চিত করেছেন জেলা নির্বাচন অফিসার আব্দুল্ল্যাহ্ আল মোতাহসিম।

এর আগে সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে বিকাল ৪টায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়। পরে পাঁচটি পৌরসভার প্রতিটি কেন্দ্রে শুরু হয় ভোটগণনা।

এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জেলার পাঁচটি পৌরসভায় নেওয়া হয় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা। নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে মাঠে ছিল র্যাব, বিজিবি, আনসার, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অন্য সদস্যরা।

বাংলঅদেশ সময়: ২২১০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৫
টিআই/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।