ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

র‌্যাংকিংয়ে স্থান পেতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে যা করতে হবে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১
র‌্যাংকিংয়ে স্থান পেতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে যা করতে হবে

ঢাকা: ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অবস্থান সুসংহত নয়। র‌্যাংকিংয়ে ভালো অবস্থানে যেতে হলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে স্ব-উদ্যোগে আবশ্যিক কিছু তথ্য দিতে হয়।

অনেক সময় দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উল্লেখ করার মতো অনেক সাফল্য থাকলেও ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিংয়ে স্থান পেতে এসব অর্জনসহ যে সকল তথ্য আবশ্যিকভাবে দিতে হয়, সে সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা না থাকায় বাংলাদেশের বিশ্বাবদ্যালয়গুলো র‌্যাংকিংয়ে স্থান পাচ্ছে না। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও গবেষকদের এ বিষয়গুলো সম্পর্কে অবহিত করতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) ও টাইমস হায়ার এডুকেশন (টিএইচই)-এর যৌথ উদ্যোগে বুধবার ভার্চ্যুয়াল প্লাটফর্মে আয়োজিত এক ওয়েবিনারে সভাপতির বক্তব্যে ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর এসব কথা বলেন।

ইউজিসি সদস্য ড. দিল আফরোজা বেগম, প্রফেসর ড. বিশ্বজিৎ চন্দ্র ও প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের ওয়েবিনারে যুক্ত ছিলেন। স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যানিং অ্যান্ড কোয়ালিটি অ্যাসিউরেন্স বিভাগের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলাম ওয়েবিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। টাইমস হায়ার এডুকেশন (টএইচই), এশিয়ার আঞ্চলিক পরিচালক ও মহাব্যবস্থাপক রিতিন মালহোত্রার সঞ্চালনায় ওয়েবিনারে ধন্যবাদ জানান এসপিকিউএ বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক জেসমিন পারভীন। পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসিউরেন্স সেলের পরিচালক ও অতিরিক্ত পরিচালক এবং ইউজিসি’র বিভাগীয় পরিচালকসহ জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা ওয়েবিনারে যুক্ত ছিলেন।


প্রফেসর মুহাম্মদ আলমগীর বলেন, বর্তমানে প্রতিযোগিতামূলক এই বিশ্বে শিক্ষাসহ সকলক্ষেত্রেই সুনামের সঙ্গে টিকে থাকতে মান উন্নয়নের বিকল্প নেই। বাংলাদেশের উচ্চাশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা আগের বছরগুলোতে উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশে পাবলিক ও প্রাইভেট ব্যবস্থাপনায় ১৫৯টি বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালিত হচ্ছে। উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে ৪৩ লাখ শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছেন। এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মানসম্পন্ন শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনার দিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে সব ক্ষেত্রে মান উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করতে হবে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যসমূহ অর্জনের ক্ষেত্রে উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে গবেষণা ও উদ্ভাবন নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র র‌্যাংকিংয়ে স্থান পেতে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষা, গবেষণা, উদ্ভাবন, শিল্প-প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যৌথ সহযোগিতামূলক কার্যক্রম ও বিশ্বায়ন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।  

তিনি আশা প্রকাশ করেন, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিংয়ের শর্ত ও প্যারামিটার সম্পর্কে জানানো গেলে, বৈশ্বিক বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাংকিংয়ে এ স্থান করে নেওয়ার ক্ষেত্রসমূহ চিহ্নিত করার মাধ্যমে তারা তা অর্জনের জন্য নিরলসভাবে কাজ করবেন।

ওয়েবিনারে ইম্প্যাক্ট র‌্যাংকিং বিষয়ে মাস্টারক্লাস পরিচালনা করেন টাইমস হায়ার এডুকেশনের চিফ নলেজ অফিসার ফিল ব্যাটি, এমডি কনসাল্ট্যান্সি এলিজাবেথ শেফার্ড এবং ডাটা এনালিসিস অফিসার হান্নাহ পিকক।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১
এমআইএইচ/এসআইএস
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa