ঢাকা, বুধবার, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ০৮ জুলাই ২০২০, ১৬ জিলকদ ১৪৪১

শিক্ষা

বই অনিয়মে জড়িতদের শাস্তি দেওয়ার কথা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-০৩-০১ ০৪:২৪:২৬ পিএম

ঢাকা: বই বিতরণে বিলম্ব ও বাজারে বই পাওয়ার ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামস্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

তিনি বলেছেন, সরকারের কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী জড়িত থাকলে শুধু বিভাগীয় ব্যবস্থা নয়, ফৌজদারী আইনে বিচারের ব্যবস্থা নেব।



সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে শিক্ষা সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর নোমন উর রশীদ উপস্থিত ছিলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বছরের প্রথম দিনই সকল শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া হয়েছে। তিন কোটি ১২ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দেওয়ার বিষয়টি সহজ নয়। তবে ষষ্ঠ ও নবম শ্রেণীর সব শিক্ষার্থী ১ জানুয়ারি বই না-ও পেতে পারে।

তিনি বলেন, কয়েক দিন আগে পঞ্চম শ্রেণীর ফলাফল ঘোষণা হওয়ায় সব শিক্ষার্থী এখনো ষষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হতে পারেনি। এছাড়া নবম শ্রেণীতে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীর এখনো বিভাগ (কলা, মানবিক, বাণিজ্য) নির্ধারণ না করায় এসব ক্লাসে এখনো বই বিতরণ করা যায়নি।

মন্ত্রী বলেন, অনেক বিদ্যালয়ে ঠিকমত বই বিতরণ করা হয়নি এবং সরকারি বই বাজারে বিক্রি হচ্ছে বলে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এসব বিষয় খতিয়ে দেখতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব (মাধ্যমিক) এ এস মাহমুদকে আহ্বায়ক করে ৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে।
কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা (মাউশি) অধিদপ্তরের পরিচালক (মাধ্যমিক) শফিকুল ইসলাম, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের সদস্য (পাঠ্যপুস্তক) নারায়ণ চন্দ্র পাল, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব পদমর্যাদার একজন এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের এক জন প্রতিনিধি।
কমিটিকে আগামী সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে বলে জানান তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কারা বাজারে বই এনেছে, কোন্ কোন্ স্কুলের শিক্ষার্থীরা ঠিকমত বই পায়নি এবং এসবের জন্য যারা দায়ী, কমিটি তাদের খুঁজে বের করবে। দোষীদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অভিভাবকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, দয়া করে আপনারা বাজার থেকে বই কিনবেন না। আপনার সন্তানের বই স্কুলেই মজুদ আছে। কানো কারণে বই না পেয়ে থাকলে স্কুলে খবর নিন।

দেশের বেসরকারি বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থী ভর্তিতে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়া প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহা পরিচালকের নেতৃত্বে একটি কমিটি কাজ করছে।

প্রসঙ্গক্রমে তিনি বলেন, তবে এসব বিষয়ে সুনির্দিষ্টভাবে কেউ অভিযোগ করেন না। ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষেত্রে এটাও একটা সমস্যা। তাছাড়া মাত্র গত বছর এ সংক্রান্ত নীতিমালা প্রণয়ন করা হচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা একটা প্রক্রিয়া বাস্তবায়নে কিছুটা সময় লাগবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৫ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৩, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa