ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ মে ২০১৯
bangla news

জাল সনদধারী সেই প্রভাষকের বিরুদ্ধে মামলা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-২১ ৯:০৯:৪৪ পিএম
বড়বাড়ি শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয়

বড়বাড়ি শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয়

লালমনিরহাট: নানান নাটকীয়তার পরে অবশেষে জাল সনদে চাকরি করে প্রতারণার অভিযোগে লালমনিরহাটের বড়বাড়ি শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয়ের প্রভাষক শাহানা পারভীনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) ওই কলেজের উপাধ্যক্ষ মরতুজা হোসেন বাদী হয়ে লালমনিরহাট সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

অভিযুক্ত শাহানা পারভীন বড়বাড়ি শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক। তিনি সদর উপজেলার বড়বাড়ি ইউনিয়নের খেদাবাগ গ্রামের সৈয়দুল হকের মেয়ে।

** সেই প্রভাষকের বেতন-ভাতা স্থগিত, মূল সনদ দাখিলের নির্দেশ

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০০৯ সালে ৯ জুলাই ইতিহাস বিভাগের প্রভাষক হিসেবে শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয়ে যোগদান করেন শাহানা পারভীন। নিয়োগকালীন সময় রোল ২২০৮০৫১২ ও রেজি নং ৬১৭৩৫৭১ উল্লেখ করে দ্বিতীয় শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার সনদ দিয়ে ২০১০ সালে ১০ নভেম্বরে এমপিওভুক্ত শিক্ষক হন তিনি। যার শিক্ষক নিবন্ধন সনদ জাল বলে শনাক্ত করা হয়। পরে শাহানার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ২০১৮ সালের ১১ অক্টোবর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অঞ্চল রংপুরের উপ-পরিচালক বরাবর চিঠি পাঠান শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) সহকারী পরিচালক মোস্তাক আহমেদ।

এর প্রেক্ষিতে ২৫ অক্টোবর অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা করতে নির্দেশনা দিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষকে আদেশ দেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা রংপুর অঞ্চলের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) আখতারুজ্জামান। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে টালবাহানা করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

বিষয়টি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হলে টনক নড়ে কর্তৃপক্ষের। ফলে অভিযুক্ত প্রভাষক শাহানা পারভীনের বেতন-ভাতা স্থগিত করে তিন দিনের মধ্যে শিক্ষক নিবন্ধন সনদের মূল কপি কলেজ অফিসে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন কলেজে অধ্যক্ষের দায়িত্ব থাকা উপাধ্যক্ষ মরতুজা হোসেন। কিন্তু কয়েক মাসেও সেই চিঠির সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

অবশেষে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা রংপুর অঞ্চলের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) আখতারুজ্জামানের নির্দেশনায় চাকরিতে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে প্রতারণার অভিযোগ তুলে শাহানার বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন কলেজটির উপাধ্যক্ষ মরতুজা হোসেন। অভিযোগটি আমলে নিয়ে নিয়মিত মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে সিআইডিকে হস্তান্তর করে সদর থানা।

বড়বাড়ি শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয়ের উপাধ্যক্ষ ও মামলার বাদী মরতুজা হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। জালিয়াতির মাধ্যমে কী পরিমাণ সরকারি অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে, তার তথ্য তদন্ত কর্মকর্তাকে দেওয়া হবে। তবে ১৯ লাখ টাকার মতো বেতন-ভাতা বাবদ উত্তোলন করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

লালমনিরহাট সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহফুজ আলম বাংলানিউজকে বলেন, সনদ জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে প্রতারণার অভিযোগ দেওয়ায় মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে সিআইডিকে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বাদী অভিযোগে আত্মসাৎকৃত অর্থের তথ্য দিলে মামলাটি দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) দেওয়া যেত বলেও মন্তব্য করেন ওসি মাহফুজ আলম।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯
জিপি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14