bangla news

বাণিজ্যমেলায় ‘আখেরি অফার’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-০৩ ২:৫৩:৪৩ পিএম
আখেরি অফারে ব্লেজার মিলছে মাত্র ১০০০ টাকায়

আখেরি অফারে ব্লেজার মিলছে মাত্র ১০০০ টাকায়

ঢাকা: মাত্র একদিন পরই পর্দা নামছে ২৫তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার। এইর মধ্যে মেলার মাঠে শেষ মুহূর্তে কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন ক্রেতা-দর্শনার্থীরা। অন্যদিকে স্টলের মালামাল বিক্রি শেষ করতে শেষ মুহূর্তে ‘আখেরি অফার’ দিচ্ছেন বিক্রেতারা। 

যে অফারে ৬০ শতাংশের বেশি দেওয়া হচ্ছে ছাড়। বিক্রেতার দেওয়া অফার ছাড়গুলো উপভোগ করছেন আগতরা, ব্যাগভর্তি করে কিনছেন নানা পণ্য।

মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, শেষ মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি ছাড় চলছে পোশাক পণ্যে। স্টলভেদে ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হচ্ছে। মেলায় ব্লেজার-কটিতে দেওয়া হচ্ছে আখেরি অফার। এ অফারে ২৬শ টাকা মূল্যের ব্লেজার কেনা যাচ্ছে মাত্র এক হাজার টাকায়। ছাড় চলছে কটি, কোট, বিদেশি ব্লেজারে। 

ফরমাল ও ক্যাজুয়াল ব্লেজারের পাশাপাশি বিদেশি ব্লেজার ও কটিতে দেওয়া হচ্ছে ৫০ শতাংশের বেশি ছাড়। বাচ্চাদের নানা রং ও কারুকাজ করা ১৫৫০ টাকার ব্লেজার পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৬শ টাকায়, ৮শ টাকার কটি পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৩শ টাকায়।

৪০ শতাংশের উপরে ছাড় চলছে বিভিন্ন থ্রি পিস ও টু পিসে। ৬৫০ টাকার থ্রি পিস এখন পাওয়া যাচ্ছে ৩৫০ টাকায়, ৫৫০ টাকার থ্রি পিস পাওয়া যাচ্ছে ৩০০ টাকায়। এছাড়া গোল্ডেন অফারে এক পিস থ্রি পিসের দাম রাখা হচ্ছে মাত্র ৩শ টাকা। আর একই অফারে তিন পিস থ্রি পিস কিনলে দাম রাখা হচ্ছে ৭শ টাকা।

মেলায় আচারে পাওয়া যাচ্ছে ৫০ শতাংশের বেশি ছাড়। কাশ্মীরি আচার, ইরানি আচার, আদি দেশি বিভিন্ন প্রকারের আচারের পাওয়া যাচ্ছে এসব ছাড়। আচার বিক্রেতারা বলছেন শেষ মুহূর্তে কোনো পণ্য ফেরত নিতে চাই না। লাভ না হলেও মাল ছেড়ে দিতে চাই।

মেলায় ৫০ শতাংশ অফার দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন ব্যাগে। ভ্যানিটি, মানিব্যাপসহ বিভিন্ন ব্যাগে ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হচ্ছে। লেদার ও সিনথেটিকের এসব ব্যাগে রয়েছে নানা কারুকাজ করা। খেলনা পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০ শতাংশ ছাড়ে। বাচ্চাদের বিভিন্ন খেলনা সামগ্রী শেষ মুহূর্তে দেওয়া হচ্ছে এসব ছাড়। 

স্টল-প্যাভিলিয়নের দেওয়া ছাড়-অফার লুফে নিচ্ছেন ক্রেতা-দর্শনার্থীরা। প্রতিটি স্টলেই রয়েছে ক্রেতার ভিড়। শেষ মুহূর্ত হওয়ায় ক্রেতারা দর-দাম করার চেয়ে কেনাকে প্রাধান্য দিচ্ছেন। অফারে ব্যাগভর্তি করে নিচ্ছেন পছন্দের পণ্য।

স্টাইল কালেকশনের সেলস ম্যানেজার শরিফ বাংলানিউজকে বলেন, মেলার প্রথম দিকে দাম কিছুটা বেশি ছিল, পছন্দের মালামাল ক্রেতারা কিনেছেন। এখন একেবারেই শেষ প্রান্তে এসেছে তাই মালামাল আর ফেরত নিয়ে যেতে চাই না। লাভের পরিবর্তে বিক্রি করাটাই প্রাধান্য হয়ে দাঁড়িয়েছে।

মেলায় আগত দর্শনার্থী আলফাজ শিহান বলেন, প্রতিবছর শেষ দিকের অপেক্ষায় থাকি, এসময়টাতে দাম খুবই কম থাকে। এবারও দাম কমেছে, কেনাকাটা করতে এসেছি। খুব ভালো লাগছে যে দাম আশা করেছিলাম তারচেয়েও দাম কমেছে এবছরের মেলায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০২০
ইএআর/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-03 14:53:43