[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৫, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

পরিবেশবান্ধব সবুজ শিল্পায়ন সরকারের অঙ্গীকার

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৩-০১ ২:১৩:২১ এএম
আন্তর্জাতিক বিড এক্সপোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন শিল্পমন্ত্রী আমু/ছবি: শাকিল

আন্তর্জাতিক বিড এক্সপোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন শিল্পমন্ত্রী আমু/ছবি: শাকিল

ঢাকা: আন্তর্জাতিক বিড এক্সপোতে যেসব প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি উপস্থাপন করা হয়েছে তা দেখে আমাদের উদ্যোক্তারা সমৃদ্ধ হবেন। এসব প্রযুক্তি ব্যবহার করে অনুপ্রাণিত হবেন নিজ নিজ শিল্প-কারখানার জ্বালানি দক্ষতা এবং অবকাঠামোগত উন্নয়নে।

বৃহস্পতিবার (১ মার্চ) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক্সপোনেট আয়োজিত ৯ম আন্তর্জাতিক বিড (বাংলাদেশ  ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনোভেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট) এক্সপো অ্যান্ড ডায়ালগ-২০১৮ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে একথা বলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

মন্ত্রী বলেন, পরিবেশবান্ধব সবুজ শিল্পায়ন বা গ্রিন ইন্ডাস্ট্রিয়ালাইজেশন প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে পরিচালিত বর্তমান সরকারের রাজনৈতিক অঙ্গীকার। আমাদের সরকার জিরো দূষণ ও জিরো দুর্ঘটনা নীতির ভিত্তিতে শিল্প গড়ে তুলতে বদ্ধপরিকর। শিল্পায়ন আমাদের অগ্রাধিকার। তবে পরিবেশের ক্ষতি করে এমন কোনো ধরনের শিল্পায়নের পক্ষে নই।

‘আমাদের তৈরি পোশাক শিল্প বিশ্বে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে আছে। জনশক্তি রপ্তানিতে আমরা পঞ্চম এবং রেমিটেন্স আহরণে অষ্টম স্থানে রয়েছি। আন্তর্জাতিক রেটিং এজেন্সি প্রাইস ওয়াটার হাউজ কুপারসের মতে ২০৩০ সাল নাগাদ বাংলাদেশ উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে।’

আমু বলেন, গত কয়েক বছর ধরে আমি এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করে আসছি। বাংলাদেশের চলমান শিল্পায়নের প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত সময়োপযোগী উদ্যোগ। এর মাধ্যমে আমাদের নির্মাণ ও জ্বালানি শিল্পখাতে পরিবেশবান্ধব পণ্য উৎপাদনের প্রয়াস জোরদার হচ্ছে।

‘দেশ স্বাধীন না হলে এর কিছুই সম্ভব হতো না। কারণ পাকিস্তান আমলে আমরা কোনো ব্যবসার মালিক ছিলাম না। বড় বড় সব শিল্প-কারখানার মালিক ছিল পাকিস্তানিরা।’ 

পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইনের সভাপতিত্বে  উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী তাকসিম এ খান, বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব ড. আহমেদ কায়কোয়াস, বিআইএফএফএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এসএম ফরমানুল ইসলাম, কনফিডেন্স গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান ইমরান করিম, এলিট পেইন্টের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাজিদ আহমেদ প্রমুখ।

পরিচালনা করেন এক্সপোনেট এক্সিবিশন প্রা: লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. রাশেদুল হক।
 
চার দিনব্যাপী এবারের প্রদর্শনীতে প্রায় আড়াই হাজার শিল্পোদ্যোক্তা, কারিগরি বিশেষজ্ঞ, ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা, প্রকৌশলী, স্থপতি, উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠান ও অর্থলগ্নিকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা অংশ নিচ্ছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৫ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০১৮
এমএইচ/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অর্থনীতি-ব্যবসা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa