ঢাকা, রবিবার, ২ আষাঢ় ১৪৩১, ১৬ জুন ২০২৪, ০৮ জিলহজ ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

সত্যিই কি বিশ্ব মজুতের ১১ শতাংশ স্বর্ণ রয়েছে ভারতীয় নারীদের কাছে?

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০০ ঘণ্টা, মে ১৯, ২০২৪
সত্যিই কি বিশ্ব মজুতের ১১ শতাংশ স্বর্ণ রয়েছে ভারতীয় নারীদের কাছে?

ভারতে বিয়ের মতো অনুষ্ঠানে স্বর্ণ উপহার দেওয়া এক ধরনের ঐতিহ্য। বিয়েতে বিভিন্ন ধরনের স্বর্ণের গহনা উপহার দিয়ে থাকেন অনেকে।

সাধারণত, নারীদেরই এই উপহার দেওয়া হয়। তাই এই স্বর্ণকে বলা হয় স্ত্রীধন। বংশ পরম্পরায় ভারতীয় নারীরা সেই স্বর্ণের অধিকার পান। প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে উত্তরাধিকার সূত্রে এই স্বর্ণ জমে নারীদের ঘরে। আর এইভাবে ভারতে এতই স্বর্ণ জমেছে যে, ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিল জানিয়েছে বিশ্বের সব থেকে বড় স্বর্ণের মজুদ রয়েছে ভারতীয় পরিবারগুলোর হাতেই।

ওয়ার্ল্ড গোল্ড কাউন্সিল ইন্ডিয়ার ডিরেক্টর সোমসুন্দরাম জানিয়েছেন, ২০২০-২১ সালে এই বিষয়ে এক সমীক্ষা করা হয়েছিল। তাতে জানা গিয়েছিল, ভারতীয় পরিবারগুলোর সম্মিলিত সোনার পরিমাণ প্রায় ২১,০০০-২৩,০০০ টন। ২০২৩-এ এই মজুত সোনার পরিমাণ বেড়ে মোটামুটিভাবে ২৪,০০০-২৫,০০০ টন হয়েছে, যা ভারতের মোট জিডিপি’র ৪০ শতাংশ।  

অক্সফোর্ড গোল্ড গ্রুপের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বের মোট মজুত সোনার ১১ শতাংশই রয়েছে ভারতীয় পরিবারগুলোর কাছে, যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ইতালি এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের সম্মিলিতভাবে মজুত থাকা স্বর্ণের থেকেও বেশি।

দেশ হিসেবে সব থেকে বেশি স্বর্ণ মজুত আছে মার্কিন সরকারের কোষাগারে, ৮,১৩৩.৪৬ টন। স্বর্ণ তাদের দেশের বৈদেশিক মুদ্রা ভান্ডারের ৭৫ শতাংশ। এরপর রয়েছে জার্মানি, দেশটির স্বর্ণ আছে ৩৩৫৯.১ টন। অক্সফোর্ডের দাবি, জার্মানরা সম্প্রতি স্বর্ণে বড় ধরনের বিনিয়োগ করেছে।  

বিশ্বব্যাপী স্বর্ণ কেনার তালিকায় শীর্ষে রয়েছে এই ইউরোপীয় দেশ। ইতালির কাছে রয়েছে ২৪৫১.৮ টন সোনা। স্বর্ণ মজুতের দিক থেকে ভারত সরকার রয়েছে নবম স্থানে। ভারত সরকারের রিজার্ভে স্বর্ণ রয়েছে ৮০০.৭৮ টন।  

সূত্র: নিউজ১৮, টিভি৯, বিবিসি

বাংলাদেশ সময়: ১০০০ ঘণ্টা, মে ১৯, ২০২৪
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।