ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

সম্প্রীতির বন্ধন ধরে রাখতে হবে: বিপ্লব বড়ুয়া

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০২০
সম্প্রীতির বন্ধন ধরে রাখতে হবে: বিপ্লব বড়ুয়া বক্তব্য দেন ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া

চট্টগ্রাম: যেকোনো মূল্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বন্ধন ধরে রাখতে হবে। এটি যদি হারিয়ে যায় তাহলে বাংলাদেশ পরাজিত হবে, বাংলাদেশের অস্তিত্ব বিপন্ন হবে।

 
শুক্রবার সকালে পটিয়া কেন্দ্রীয় বৌদ্ধবিহার ও কল্যাণ প্রকল্প প্রাঙ্গণে কঠিন চীবর দানোৎসবে এ মন্তব্য করেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া।  

এ সময় ব্যারিস্টার বিপ্লব বলেন, শেখ হাসিনার রাজনীতি হচ্ছে এদেশের প্রতিটি মানুষ জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সমান অধিকার, সমান মর্যাদা নিয়েই এ দেশের মাটিতে জন্মগ্রহণ করবে এবং এদেশের মাটিতেই মৃত্যুবরণ করবে। পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় ধর্ম নিয়ে রাজনীতি হলেও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজকের বাংলাদেশ উন্নয়নের পাশাপাশি সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির রোল মডেল।  

এ বাংলাদেশকে সুন্দরভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে জাতি-বর্ণ-ধর্ম নির্বিশেষে এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান বিপ্লব বড়ুয়া।  

শাকপুরা তপোবন সর্বজনীন বিহারের অধ্যক্ষ সদ্ধর্মজ্যোতিকাধ্বজ ভদন্ত বসুমিত্র মহাথেরোর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার সহ-সভাপতি শাসনভাস্কর ভদন্ত শাসনপ্রিয় মহাথেরো, প্রজ্ঞাসারথী ভদন্ত প্রজ্ঞানন্দ মহাথেরো, পটিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর  রশিদ প্রমুখ।

এর আগে ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া পটিয়া উপজেলার ঊনাইনপুরা লঙ্কারাম বিহারে ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের পেটিকাবদ্ধ মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন ও বন্দনা করেন।  
এ সময় তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বাংলাদেশি বৌদ্ধদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় গুরু দ্বাদশ সংঘরাজ ড. ধর্মসেন মহাস্থবির। তিনি ছিলেন বৌদ্ধ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির প্রতীক, শান্তির দূত ও আন্তর্জাতিক সাংঘিক ব্যক্তিত্ব। তিনি আমৃত্যু গৌতমবুদ্ধের শান্তির বাণী প্রচার করেছেন এবং বৌদ্ধদের ঐক্যবদ্ধ করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। তাঁর মানবতাবাদী ভূমিকা বাংলাদেশের মানুষের কাছে চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে।  
এ সময় উপস্থিত ছিলেন দ্বাদশ সংঘরাজ ড. ধর্মসেন মহাস্থবির জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উদযাপন পরিষদের কার্যকরি সভাপতি ও বাংলাদেশ বৌদ্ধ সমিতির চেয়ারম্যান অজিত রঞ্জন বড়ুয়া, উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক প্রণব বড়ুয়া অর্ণব, প্রধান সমন্বয়কারী সবুজ বড়ুয়া সাজু, উদযাপন পরিষদের অভ্যর্থনা কমিটির চেয়ারম্যান দেশপ্রিয় বড়ুয়া চৌধুরী, বুড্ডিস্ট ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক ও মেরুল বাড্ডা আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারের উপাধ্যক্ষ সুনন্দ প্রিয় ভিক্ষু, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের পানিসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক রাহুল বড়ুয়া, ঢাবির অধ্যাপক বিমান বড়ুয়া, প্রকৌশলী পুলক কান্তি বড়ুয়া, চবির অধ্যাপক অরূপ বড়ুয়া, জাবির অধ্যাপক জগন্নাথ বড়ুয়া, চারু উত্তম, নগর আওয়ামী লীগ নেতা মিথুন বড়ুয়া, নগর যুবলীগ নেতা সনত বড়ুয়া, পটিয়া উপজেলা আওয়ামী নেতা প্রজ্ঞাজ্যোতি বড়ুয়া, সরিৎ বড়ুয়া সাজু, উদযাপন পরিষদের নিত্যময় চৌধুরী, মিলিন্দ রাজ চৌধুরী, ভবেশ কান্তি বড়ুয়া, তুষিত কান্তি বড়ুয়া, জীবেন্দু বিকাশ বড়ুয়া, জনপ্রিয় বড়ুয়া ও ভদন্ত জয়সেন ভিক্ষু।

গত ২১ মার্চ বাংলাদেশি বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সর্বোচ্চ ধর্মীয় গুরু ড. ধর্মসেন মহাস্থবির পরলোকগমন করেন। ২০২১ সালের ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উদযাপিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০২০
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa