ঢাকা, সোমবার, ৩ আষাঢ় ১৪৩১, ১৭ জুন ২০২৪, ০৯ জিলহজ ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটিতে সেমিনার 

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২২ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২৪
বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটিতে সেমিনার  ...

চট্টগ্রাম: বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের উদ্যোগে ‘Embracing Diverse Varieties of Global Englishes for Effective Communication' শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক প্রফেসর শাশ্বতী  দাশ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এফ এম আওরঙ্গজেব, বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ড. এস এম শোয়েভ, কী নোট স্পীকার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. সুকান্ত ভট্রাচার্য, আলোচনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান মো. আজিম উদ্দিন।

 

ইংরেহি বিভাগের শিক্ষক রিনি দত্তের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিভাগের শিক্ষক মাহমুদা আকতার, জেবুন নাহার, জিনুফার ইয়াসমিন ও রাহুল সরকার প্রমুখ।

এ সময় উপাচার্য প্রফেসর ড. এ এফ এম আওরঙ্গজেব বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভাষাগত পার্থক্য রয়েছে, কিন্তু ইংরেজি এমন একটি মাধ্যম যা আন্তর্জাতিকভাবে সকল ধরনের যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে সমাদৃত হয়েছে।

যার ফলে আমরা আন্তর্জাতিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে বা ভাষাগত ভিন্নতা থাকলে তখন আমরা ইংরেজি ভাষার মাধ্যমে তা সমাধানের চেষ্টা করি। পৃথিবীর সকল দেশে শিক্ষা ক্ষেত্রে ইংরেজি মাধ্যমকে প্রাধান্য দেওয়া হয়। তাই বিভিন্ন ক্ষেত্রে ইংরেজি সাহিত্যের শিক্ষার্থীরা সবচেয়ে বেশি এগিয়ে থাকে। কিন্তু শুধু ইংরেজি বললেই হবে না তার ভাষার্থ বুঝার জন্য আপনাকে অবশ্যই সহজবোধ্য ভাষায় শব্দ চয়নের দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। আমরা আমাদের শিক্ষার্থীদের দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করছি। তাই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সহযোগিতায় সবসময় বিষয় ভিত্তিক সেমিনার, ট্রেনিং ও ওয়ার্কশপ এর আয়োজন করছি। আশাকরি আজকের এই সেমিনার থেকে তোমরা অনেক কিছু জানতে পারবে।  

কী নোট স্পীকার প্রফেসর ড. সুকান্ত ভট্রাচার্য বলেন, বৈশ্বিক এই যুগে প্রযুক্তির উৎকর্ষতা সাধনের কারণে পৃথিবীর সকল মানুষ এখন অনেকটা একই ছাতার নিচে এবং সেক্ষেত্রে মূল মাধ্যম হিসেবে কাজ করছে ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য। ইংরেজি ভাষার প্রতিটি শব্দের যেমন অনেক সমার্থক শব্দ রয়েছে তেমনি আবার একই রকম শব্দের ভাবার্থ ভিন্ন রকমের আছে। সুতরাং সেক্ষেত্রে আপনার শব্দ ভান্ডারকে অনেক বেশি সমৃদ্ধ করতে হবে। আমরা চাই দেশের শিক্ষার্থীরা ৪র্থ শিল্প বিপ্লবের এই প্রতিযোগিতাময় বিশ্বে নিজেদের একজন দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে তৈরি করুক সে ক্ষেত্রে প্রযুক্তির সাথে সাথে আপনাকে ইংরেজীতে অনেক বেশি দক্ষ হতে হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১০১৫ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২৪
পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।