ঢাকা, শনিবার, ৯ আশ্বিন ১৪২৮, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬ সফর ১৪৪৩

ক্রিকেট

পদত্যাগ করলেন রশিদ খান, নেতৃত্বে নবি

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪২১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২১
পদত্যাগ করলেন রশিদ খান, নেতৃত্বে নবি

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করেছে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি)। এসিবির টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে এ দল ঘোষণার কিছুক্ষণ পরই দলটির নেতৃত্ব থেকে পদত্যাগ করেছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা লেগ স্পিনার রশিদ খান।

তিনি পদত্যাগ করার পর অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবিকে বিশ্বকাপের জন্য অধিনায়কের দায়িত্ব দিয়েছে এসিবি।

টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় রশিদ জানান, আফগানিস্তানের বিশ্বকাপ স্কোয়াড নিয়ে নির্বাচকরা তার সঙ্গে আলোচনা না করায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।  

টুইটে রশিদ লিখেছেন, ‘অধিনায়ক ও জাতির দায়িত্বশীল ব্যক্তি হিসেবে আমি দল নির্বাচন কাজের অংশ হওয়ার অধিকার রাখি। এসিবি মিডিয়া যে স্কোয়াড ঘোষণা করেছে তার জন্য আমার কোনো অভিমত নেওয়া হয়নি। ’ 

তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমি আফগানিস্তান টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আফগানিস্তানের হয়ে খেলা আমার জন্য সবসময় গর্বের। ’

এদিকে রশিদ খান পদত্যাগ করার পর আফগানিস্তানের ঘোষিত দল নিয়েও ধোঁয়াশা দেখা দিয়েছে। বিশ্বকাপ দলে সর্বোচ্চ ১৫ সদস্য থাকার কথা থাকলেও এসিবি ঘোষিত স্কোয়াডে আছেন ১৮ জন।  

উল্লেখ্য, আফগানিস্তানের বোর্ড প্রধান ও অধিনায়ক, পদাধিকার বলে উভয়ই নির্বাচক কমিটির সদস্য।

বৃহস্পতিবার রাতে ঘোষিত দলে জায়গা পেয়েছেন দীর্ঘদিন ধরে দলের বাইরে থাকা কয়েকজন সিনিয়র ক্রিকেটারকে। জানা গেছে, আফগান ক্রিকেট বোর্ডের (এসিবি) তালেবান মনোনীত ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আজিজউল্লাহ ফাজিলের হস্তক্ষেপে বেশ ওই সিনিয়র ক্রিকেটার দলে ফেরায় চটেছেন রশিদ। তার মতে, দীর্ঘদিন দলের বাইরে থাকা এই সিনিয়রদের ফিটনেস ও শৃঙ্খলা নিয়ে সমস্যা আছে।

আফগানিস্তানের বিশ্বকাপ দলে জায়গা পেয়েছেন ২০১৯ সালে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হওয়া মোহাম্মদ শাহজাদ। পরে ক্রিকেটে ফিরলেও জাতীয় দলে আর সুযোগ পাচ্ছিলেন না তিনি। এছাড়া অভিজ্ঞ তিন পেসার হামিদ হাসান, শাপুর জাদরান ও দওলত জাদরানও দলে আছেন। এর মধ্যে হামিদ জাতীয় দলের জার্সিতে সবশেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ২০১৬ বিশ্বকাপে। শাপুর খেলেছেন দেড় বছর আগে আর দওলত দুই বছর আগে। রশিদের অসন্তুষ্টি মূলত এই চারজনকে নিয়েই। হাশমতউল্লাহ শহিদিকেও টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের উপযুক্ত মনে করেন না তিনি।  

এদিকে একসময় এসিবির প্রকাশ্য সমালোচক ও রশিদ খানের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত নবি অধিনায়কত্ব করবেন কি না তা নিয়ে সংশয় দেখা গেলেও পরে তিনি জানান দায়িত্ব গ্রহণের কথা। এক টুইটে তিনি লিখেছেন, 'এই কঠিন সময়ে, টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব ঘোষণায় এসিবির সিদ্ধান্তকে আমি সম্মান জানাই। আশা করি, আমরা সবাই একসঙ্গে আগামী বিশ্বকাপে দারুণ কিছু করতে পারব। '

নবি এর আগেও আফগান দলের নেতৃত্বে ছিলেন। ১২টি টি-টোয়েন্টিতে এই দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সর্বশেষ তাকে এই এই ভূমিকায় দেখা গেছে। ২৮টি ওয়ানডেতেও তিনি দলের অধিনায়কত্ব করেছেন।

আফগানিস্তান দল: রশিদ খান, রহমানউল্লাহ গুরবাজ, হজরতউল্লাহ জাজাই, উসমান গনি, আসগর আফগান, মোহাম্মদ নবি, নাজিবউল্লাহ জাদরান, হাশমতউল্লাহ শহিদি, মোহাম্মদ শাহজাদ, মুজিব উর রহমান, করিম জানাত, গুলবদিন নাইব, নাভিন উল হক, হামিদ হাসান, শরাফউদ্দিন আশরাফ, দওলত জাদরান, শাপুর জাদরান, কাইস আহমেদ।

অতিরিক্ত: আফসার জাজাই, ফরিদ আহমাদ মালিক।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১০, ২০২১
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa