ঢাকা, বুধবার, ১২ মাঘ ১৪২৮, ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আদালত

মুন্সীগঞ্জে পদ্মা নদীতে বাঁধ অপসারণের নির্দেশ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৫২ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০১৮
মুন্সীগঞ্জে পদ্মা নদীতে বাঁধ অপসারণের নির্দেশ

ঢাকা: মুন্সীগঞ্জ সদর ও টঙ্গীবাড়ি উপজেলার সীমান্তবর্তী শিলই ও দিঘিরপাড় ইউনিয়ন ঘেঁষা পদ্মা নদীতে নির্মিত বাঁধ অপসারণ এবং টোল আদায় থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এ বিষয়ে সংবাদপত্রে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন নজরে আনার পর বুধবার (২১ মার্চ) স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে রুলসহ এ আদেশ দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ।  
 
রুলে পদ্মার বুকে বালু-মাটি দিয়ে বাঁধ নির্মাণ ও টোল আদায় কেনো অবৈধ হবে না তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে ঘটনা তদন্ত করে এতে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে কেনো নির্দেশ দেওয়া হবে না, তাও জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। এছাড়া ওই ঘটনা তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দিতে মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

চার সপ্তাহের মধ্যে মুন্সীগঞ্জের ডিসি, এসপি, সদর উপজেলার ইউএনও, শিলই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, মুন্সীগঞ্জ সদর ও টঙ্গীবাড়ি উপজেলার সীমান্তবর্তী শিলই ও দিঘিরপাড় ইউনিয়ন ঘেঁষা পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে বাঁধ নির্মাণ করে ট্রলি, মহেন্দ্র ও মোটরসাইকেল পারাপার করা হচ্ছে। বাঁধ নির্মাণস্থলে টোলঘর বসিয়ে প্রতিদিন আদায় করা হচ্ছে হাজার হাজার টাকা। এ বাঁধের কারণে পদ্মা নদীর জোয়ার-ভাটার পানি প্রবাহিত হওয়ার স্বাভাবিক গতি বন্ধ হয়ে গেছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়,  প্রতিদিন এ বাঁধ ব্যবহার করে পারাপার হওয়া আলুর বস্তাভর্তি ট্রলি ও মহেন্দ্র গাড়িপ্রতি টোল আদায় করা হচ্ছে ৩শ টাকা। মোটরসাইকেলের টোল ৫০ টাকা এবং অন্যান্য গাড়িতে নেওয়া আলুর বস্তাপ্রতি ২০ টাকা করে টোল আদায় করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫২ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০১৮
ইএস/জিপি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa