ঢাকা, বুধবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

আদালত

শ্রদ্ধায় সুপ্রিম কোর্টের প্রয়াত দুই বিচারপতিকে স্মরণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৩৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০১৭
শ্রদ্ধায় সুপ্রিম কোর্টের প্রয়াত দুই বিচারপতিকে স্মরণ সদ্য প্রয়াত বিচারপতি মোহাম্মদ বজলুর রহমান ও জে এন দেব চৌধুরীকে স্মরণ করা হয়

ঢাকা: শ্রদ্ধা, ভালবাসা আর চোখের জলে সুপ্রিম কোর্টে কর্মরত থাকাবস্থায় মারা যাওয়া দুই বিচারপতিকে স্মরণ করলেন বিচারপতি ও আইনজীবীরা। বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়ামে সিলেট বিভাগীয় আইনজীবী পরিষদ এ স্মরণ সভার আয়োজন করে।

সভায় সদ্য প্রয়াত আপিল বিভাগের বিচারপতি মোহাম্মদ বজলুর রহমান ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি জে এন দেব চৌধুরীকে স্মরণ করা হয়। সহকর্মীকে হারিয়ে স্বরণসভায় কাঁদলেন বিচারপতিরা।

আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞা এবং হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী ও বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম কাঁদলেন। তাদের আবেগাপ্লুত বক্তব্য শুনে অশ্রুসিক্ত হন উপস্থিত আইনজীবীরা।

প্রধান অতিথি হিসেবে সভায় প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও তার অনুপস্থিতিতে বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞা প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করা যেতে পারে। কিন্তু বিচারপতি হওয়ার পর সেটা ধরে রাখা ঠিক না। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গিয়েছি- কাউকে বলতে শুনিনি বজলুর রহমান তার রায়ে সেটার প্রতিফলন করেছেন। কারণ এক সময়ের তুখোড় ছাত্রলীগ নেতা বজলুর রহমান ছিলেন সৎ।

বিচারপতি ওয়াহহাব মিয়া আরও বলেন, জেন এন দেব চৌধুরী ছিলেন দেওয়ানি মামলায় অভিজ্ঞ। তার বাবা সিলেটের বিখ্যাত দেওয়ানি আইন বিশেষজ্ঞ জিতেন্দ্র নারায়ণের কাছ থেকে সব অমায়িকতা শিখেছেন। কিন্তু সেটা দেখানোর সুযোগ পাননি। যদি বেঁচে থাকতেন তাহলে সেটা সবাই দেখতো পেতো।

আয়োজক সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম খালেদ আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন, সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, হাইকোর্ট বিভাগের সাবেক সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, বারের সাবেক সভাপতি জয়নুল আবেদীন, সাবেক মন্ত্রী আবদুল মতিন খসরু, মাহবুব আলী এমপি, বারের সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী রুমি, বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি খিজির আহমেদ চৌধুরী।

এক সময়ের ছাত্রলীগ নেতা চাঁপাইনবাবগঞ্জের কৃতী সন্তান আপিল বিভাগের বিচারপতি মোহাম্মদ বজলুর রহমান ছানা গত ১ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

সিলেটের কৃতি সন্তান বিচারপতি জে এন দেব চৌধুরী গত বছর ১৫ ডিসেম্বর বিকেলে স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

কর্মরত অবস্থায় মারা যাওয়ায় এ দুই বিচারপতির স্মরণে গত ২ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টে সাধারণ ছুটি পালিত হয়। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা ওইদিনটি সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০১৭
ইএস/এটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa