bangla news

লক্ষ্মীপুরে নদীর পানির প্রবহ মাপের ব্যবস্থা নেই!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-০৩ ৬:৫৪:২৯ পিএম
ঘূণিঝড় ‘ফণী’র প্রভাবে উত্তল মেঘনা নদী। ছবি: বাংলানিউজ

ঘূণিঝড় ‘ফণী’র প্রভাবে উত্তল মেঘনা নদী। ছবি: বাংলানিউজ

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীর পানির প্রবহ পরিমাপের কোনো যন্ত্র, স্কেল কিংবা অন্য কোনো ব্যবস্থাও নেই। ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র থেকে রক্ষায় প্রশাসন সতর্ক-সজাগ অথচ পানির বিপদসীমার নির্ণয়ের কোনো ব্যবস্থা নেই লক্ষ্মীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডে, এমনটি সত্যিই অবাক হওয়ার মতো। 

লক্ষ্মীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মুসার সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে দ্রুত নদীর পানির উচ্চতা পরিমাপের যন্ত্র স্থাপন করবেন বলে জানিয়েছে তিনি।

ঘূর্ণিঝড় 'ফণী'র প্রভাবে লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীতে জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় ৩ থেকে ৪ ফুট বেড়েছে। এ বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য শুক্রবার (৩ মে) বিকেলে লক্ষ্মীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানাতে পারেননি। নদীর পানি পরিমাপের কোনো যন্ত্র কিংবা অন্য কোনো ব্যবস্থা নেই বলে জানান তিনি।

১৫ মিনিট পর মোবাইলফোনে তিনি জানিয়েছেন স্বাভাবিকের চেয়ে সাড়ে ৪ ফুট পানি বেড়েছে। পানি বাড়ার বিষয়টি অনুমান করে বলেছেন কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কমলনগরে নদীর তীররক্ষা বাঁধের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন। 

এদিকে লক্ষ্মীপুরে ‘ফণী’ মোকাবিলায় সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে জেলা প্রশাসন। মেঘনা উপকূলীয় এলাকায় ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র ব্যাপারে জনগণকে সচেতন করতে বৃহস্পতিবার (২ মে) থেকে মাইকিং চলছে। তাছাড়া লক্ষ্মীপুর-ভোলা-বরিশাল নৌরুটে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। নদীতে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারগুলোকেও নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এরইমধ্যে ৬৬টি মেডিকেল টিম গঠন করার পাশাপাশি সরকারি বরাদ্দের ৩৭৫ মেট্রিক টন চাল, দুই হাজার ৫০০ বস্তা শুকনো খাবার ও আট লাখ টাকা মজুদ রাখা হয়েছে। প্রস্তুত রাখা হয়েছে ১০০টি আশ্রয়কেন্দ্রসহ সব পাকা শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫০ ঘণ্টা, মে ০৩, ২০১৯
এসআর/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   লক্ষ্মীপুর ফণী
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

জলবায়ু ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-05-03 18:54:29