ঢাকা, শনিবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৮ মে ২০২২, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

বইমেলা

গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’র সপ্তম খণ্ডের মোড়ক উন্মোচন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৪৫১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২০
গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’র সপ্তম খণ্ডের মোড়ক উন্মোচন ছবি: বাসস

ঢাকা: গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’-এর সপ্তম খণ্ডের মোড়ক উন্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার (০২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মাসব্যাপী 'অমর একুশে গ্রন্থমেলা' উদ্বোধনের পর সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) স্টলে গিয়ে এর মোড়ক উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী।

মোড়ক উন্মোচনের পর প্রধানমন্ত্রীর হাতে গ্রাফিক নভেল মুজিব-এর সপ্তম খণ্ড তুলে দেন সিআরআইয়ের ট্রাস্টি ও গ্রাফিক নভেল 'মুজিব' সিরিজের প্রকাশক বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র, শেখ রেহানার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক।

এ সময় বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামানসহ মোড়ক উন্মোচনের সময় উপস্থিত অন্যান্য অতিথিদের হাতেও এক সেট করে বই তুলে দেওয়া হয়।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রী দীপু মণি, সিআরআইয়ের নির্বাহী পরিচালক সাব্বির বিন শামস, বইটির সম্পাদক শিবু কুমার শীল, কার্টুনিস্ট সৈয়দ রাশাদ ইমাম তন্ময় প্রমুখ।

সিআরআইয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বইটি হাতে নিয়েই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এইটা তো সেই বই, তাই না?’ প্রধানমন্ত্রীর এই উক্তির কারণ বইটির সম্পাদনায় সরাসরি অংশগ্রহণ ছিল তার।

সিআরআইয়ের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শিশু-কিশোরদের জন্য তৈরি গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’র সপ্তম খণ্ডে উঠে আসে তৎকালীন দুর্ভিক্ষের চিত্র। আর সেখানে মানুষগুলোর অবয়ব পরিবর্তন করে রুগ্ন ও শীর্ণ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যেমনটা দুর্ভিক্ষের সময় ছিল। শুধু তাই নয় বইটির সূক্ষ্ম থেকে সূক্ষ্মতর ভুলগুলো খুঁজে বের করে তা ঠিক করে দেন প্রধানমন্ত্রী।
 
গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব’ প্রকাশের শুরু থেকেই সম্পাদনা, নাম ঠিক করে দেওয়াসহ বিভিন্ন নির্দেশনা দিয়ে আসছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বড় মেয়ে শেখ হাসিনা।

সিআরআইয়ের বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়,  প্রথম পর্বে (গ্রাফিক নভেল মুজিব-১) খেলাধুলা, পড়াশোনা, ডাক্তারের কাছ থেকে পালানো, প্রথমবারের মতো কারাবরণের মতো বিভিন্ন কৌতূহলোদ্দীপক কাজের পাশাপাশি দেশের প্রতি তরুণ বয়স থেকেই নিজের বিশ্বাসের পক্ষে দৃঢ় অবস্থান নিতে দেখা যায় কিশোর শেখ মুজিবকে।

গ্রাফিক নভেল মুজিব-২ এ বঙ্গবন্ধুর রাজনীতিতে হাতেখড়ির পাশাপাশি তার প্রেরণা হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠার বিষয়টি তুলে ধরা হয়।

গ্রাফিক নভেল মুজিব-৩ এ বঙ্গবন্ধুর স্কুল ও কলেজের শিক্ষাজীবনের পাশাপাশি সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড, দুর্ভিক্ষের সময় মানবিক ভূমিকার বিষয় উঠে আসে।

গ্রাফিক নভেল মুজিব-৪ এ অল ইন্ডিয়া মুসলিম লীগ সম্মেলন শেষে তরুণ শেখ মুজিবের দিল্লির বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান ভ্রমণ ও ১৯৪৪ সালে ছাত্রলীগের সম্মেলনে তার ভূমিকার বিষয়টি তুলে ধরা হয়।

গ্রাফিক নভেল মুজিব-৫ এ ১৯৪৫ সালে শেখ মুজিবুর রহমানকে কীভাবে ছাত্রলীগের পদ থেকে বঞ্চিত করা হয়, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ এবং যুদ্ধকে কেন্দ্র করে কিছু স্বার্থান্বেষী মহলের কালোবাজারি এবং দেশের কিছু এমএলএ ও খান বাহাদুরদের স্বার্থের টানাপড়েনের কারণে ব্রিটিশ গভর্নরের কাছে ক্ষমতা চলে যাওয়ার ঘটনা বর্ণনা করা হয়।

গ্রাফিক নভেল মুজিব-৬ এ খাজা নাজিমুদ্দিনের নানা কূটকৌশলের বিপরীতে বঙ্গবন্ধুর অবস্থান তুলে ধরা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২৩৫০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০২, ২০২০
এমইউএম/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa