ঢাকা, শনিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫ রজব ১৪৪৪

শিল্প-সাহিত্য

শেষ হলো সর্ববৃহৎ লিটল ম্যাগ সম্মিলন ‌‍‌‌‍‍‍‘চিহ্নমেলা মুক্তবাঙলা’

রাবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৪৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৮, ২০২২
শেষ হলো সর্ববৃহৎ লিটল ম্যাগ সম্মিলন ‌‍‌‌‍‍‍‘চিহ্নমেলা মুক্তবাঙলা’

রাবি: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) বাংলা ভাষার সর্ববৃহৎ লিটল ম্যাগ সম্মিলন ‘চিহ্নমেলা মুক্তবাঙলা’র পঞ্চম আসর শেষ হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) রাতে সমাপনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. মু. শহীদুল্লাহ একাডেমিক ভবন প্রাঙ্গণে আয়োজিত দুদিনব্যাপী এ মেলা শেষ হয়।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা সাহিত্য বিষয়ক ছোটকাগজ ‌‘চিহ্ন’ পঞ্চমবারের মতো এ মেলার আয়োজন করেছে। এবারের মেলায় লেখক-পাঠক-সম্পাদকের উপস্থিতিও ছিল অন্যবারের চেয়ে বেশি।  

সোমবার (১৭ অক্টোবর) মেলার প্রথম দিন সকাল থেকে শেষ দিন সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা পর্যন্ত পাঠক ও দর্শনার্থী ছিল চোখে পড়ার মতো। ভারতের কলকাতা থেকে আসা ’কলকাতা কথকতা’ স্টলে মানুষের ছিল উপচেপড়া ভিড়।  

এছাড়া ’চিহ্ন’, ’ম্যাজিক মণ্ঠন’, ’লোরকা’ ’পরিশীলন’ অনির্বাণ, ’দ্য বার্থ’, ’রাষ্ট্রচিন্তা’ স্টলেও ভিড় জমিয়েছিলেন পাঠক ও দর্শনার্থীরা। মেলায় বাংলাদেশের ১০০টি ও ভারতের ৬৫টি ছোট কাগজ ও পত্রিকা অংশগ্রহণ করেছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেশ বরেণ্য কবি নির্মলেন্দু গুণ। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান উল ইসলাম, অধ্যাপক সনৎকুমার সাহা, অধ্যাপক জুলফিকার মতিন, চিহ্ন’র সম্পাদক অধ্যাপক শহীদ ইকবাল।

প্রথম দিন বেলা ১১টায় বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন করা হয়। পরে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এরপর বেলা সাড়ে ১১টায় বাংলা একাডেমির পরিচালক আমিনুর রহমান সুলতানের সঞ্চালনায় ’প্রয়াত-প্রিয়জন’ শীর্ষক পর্বে প্রয়াত শঙ্খ ঘোষ, সৈয়দ শামসুল হক, দেবেশ রায়, আনিসুজ্জামান ও হাসান আজিজুল হকের স্মৃতিচারণ করেন রুহুল আমিন প্রামাণিক ও ইমানুল হক, কবি নির্মলেন্দু গুণ, অধ্যাপক মোহাম্মদ আজম, বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক সনৎকুমার সাহা ও জুলফিকার মতিন।

বাংলা একাডেমির পরিচালক আমিনুর রহমান সুলতানের সঞ্চালনায় ’প্রয়াত-প্রিয়জন’ শীর্ষক পর্বে প্রয়াত শঙ্খ ঘোষ, সৈয়দ শামসুল হক, দেবেশ রায়, আনিসুজ্জামান ও হাসান আজিজুল হকের স্মৃতিচারণ করেন রুহুল আমিন প্রামাণিক ও ইমানুল হক, কবি নির্মলেন্দু গুণ, অধ্যাপক মোহাম্মদ আজম, বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক সনৎকুমার সাহা ও জুলফিকার মতিন।

এদিন ’সৃষ্টিশীলতার সমাজতত্ত্ব ও লিটল ম্যাগ’ নিয়ে একক বক্তব্য দেন প্রাবন্ধিক অধ্যাপক মোহাম্মদ আজম। অনুবাদ প্রসঙ্গ নিয়ে কথাসাহিত্যিক মোজাফ্ফর হোসেনের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন- আলম খোরশেদ, শরীফ আতিক-উজ-জামান, সফিকুল ইসলাম, প্রত্যয় হামিদ ও মুহম্মদ মুহসীন।

মেলার দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার বাংলাদেশের ’তৃতীয় চোখ’ ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ’নৌকো’ পত্রিকাকে ’চিহ্ন লিটল ম্যাগ সম্মাননা’ দেওয়া হয়। ’চিহ্ন সাহিত্য পুরস্কার’ দেওয়া হয় কথাসাহিত্যিক হামিদ কায়সারকে। কবি জুলফিকার মতিনকে ’চিহ্ন সারস্বত সম্মাননা’ দেওয়া হয়।  

এছাড়া মেলায় প্রতিদিন সন্ধ্যায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। প্রথম দিন মঞ্চ মাতিয়েছেন বিখ্যাত লালন গায়ক কাঙালিনী সুফিয়া। মেলার দ্বিতীয় দিন মঞ্চ মাতিয়েছে গানের দল ’ম্যাজিক মাতাল’ ও ’মোহন’র বংশীবাদক হাসন রাজা।

বাংলাদেশ সময়: ২৩৪২ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৮, ২০২২
আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa