ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

শিল্প-সাহিত্য

গ্যালারি চিত্রকে নিসার হোসেনের ‘ষাট বছরের খতিয়ান’

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১
গ্যালারি চিত্রকে নিসার হোসেনের ‘ষাট বছরের খতিয়ান’

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের ডিন নিসার হোসেনের ষাটতম জন্মদিন উদযাপন উপলক্ষে গ্যালারি চিত্রকে শুরু হলো ‘ষাট বছরের খতিয়ান’ শিরোনামে চিত্রপ্রদর্শনী। শিল্পীর বিভিন্ন সময়ের আঁকা শতাধিক চিত্রকর্ম দিয়ে সাজানো হয়েছে মাসব্যাপী এই আয়োজন।

শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডির গ্যালারি চিত্রকে অনুষ্ঠিত হয় প্রদর্শনীর উদ্বোধনী আয়োজন। উদ্বোধন করেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূর।

শিল্পী রফিকুন নবীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সংসদ সদস্য শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, প্রকৌশলী মঈনুল আবেদীন ও শিল্পানুরাগী কাজী আনিসুল মুকিত। অন্যদের মধ্যে ছিলেন শিল্পী ও ভাস্কর হামিদুজ্জামান, ইকবাল, রসিদ আমিন, আর্কিটেক্ট শহীদ কবির পলাশ, অসীম কুমার উকিল প্রমুখ।

আসাদুজ্জামান নূর বলেন, নিসার হোসেনের চিন্তা, বড় হয়ে ওঠা, তার দর্শন, মানুষ ও দেশ নিয়ে তার যে ভাবনা, যে প্রগতিশীলতাকে তিনি ধারণ করেন, যা কিছু তিনি নিজের ভেতরে লালন করেন, তার সবকিছু পেয়েছেন উত্তরাধিকারসূত্রে। সময়ের পরিবর্তনের সঙ্গে তার চিন্তা আরও সমৃদ্ধ ও বিস্তৃত হয়েছে। কিন্তু শেকড়টা ছিল বাবা এমদাদ হোসেন, বঙ্গবন্ধু, ৭ মার্চের ভাষণ ও মুক্তিযুদ্ধ।

আনিস মুকিত বলেন, শিল্পীরা শূন্য ক্যানভাসে নতুন কিছু সৃজন করেন। একে মূল্য দিতে হবে। তাহলে দেশের শিল্পীদের কাজের গতি বাড়বে, সাংস্কৃতিকভাবে আমরা আরও এগিয়ে যাবো। সাংস্কৃতিকভাবে এগিয়ে যাওয়াই তো দেশের এগিয়ে যাওয়া।

শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, বিভিন্ন আন্দোলন-সংগ্রামে শিল্পী নিসার হোসেনকে পেয়েছি। নিসার হোসেন অনেক প্রতিকূলতার মধ্যেও কাজ করেন। প্রতিকূলতার মধ্যেও যারা কাজ করেন তারা শ্রদ্ধা পাওয়ার যোগ্য। সংস্কৃতি সরে গেলে মাদক-জঙ্গিবাদ জায়গা করে নেবে।

শিল্পী নিসার হোসেন বলেন, এটাই প্রথম আনুষ্ঠানিক প্রদর্শনী ও উদ্বোধন। মৌলবাদী উত্থানের সময় সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে ২০০২ সালে গ্যালারি টুয়েন্টি ওয়ানে প্রদর্শনীর আয়োজন করেছিলাম। সেটা চিত্রকে করার কথা ছিল। এবারের এ প্রদর্শনীতে আমার বিভিন্ন পর্যায়ের প্রায় ৪৪ বছরের কাজ আছে। ছবিগুলো আমি দেওয়ালের শোভা বাড়াতে আঁকিনি, সাম্প্রতিক সময়ের সংবাদ ও ঘটনা পড়ে যে প্রতিক্রিয়া হয়েছে সেটাই এঁকেছি।

ধানমন্ডির গ্যালারি চিত্রকে শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত শিল্পী ও শিল্পানুরাগীদের জন্য এ প্রদর্শনীর গ্যালারি উন্মুক্ত থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১
এইচএমএস/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।