ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ সফর ১৪৪২

বইমেলা

মেলায় মাজুল হাসানের কবিতার বই ‘লালপীড়িত’

শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০
মেলায় মাজুল হাসানের কবিতার বই ‘লালপীড়িত’

ঢাকা: অমর একুশে বইমেলায় প্রকাশ পেয়েছে কবি, গদ্যকার, অনুবাদক মাজুল হাসানের চতুর্থ কবিতার বই ‘লালপীড়িত’। সাম্প্রতিক বিভিন্ন অনুষঙ্গ, কবির যাপিত জীবন, প্র্রেম, অনুচ্চ রাজনীতি, সময়ের সাথে বোঝাপড়াসহ নানান বিষয় উঠে এসেছে এ বইয়ে।

লালপীড়িত প্রকাশ করেছে প্রকাশনা সংস্থা- বেহুলা বাংলা। প্রচ্ছদ করেছেন- মোস্তাফিজ কারিগর।

৪৮ পৃষ্ঠার বইটির দাম রাখা হয়েছে ১৫০ টাকা। মেলায় বেহুলা বাংলার ৪৬৯-৪৭১ নম্বর স্টলে মিলছে এ বই।  

লালপীড়িত বইটির ব্যাপারে জানতে চাইলে কবি মাজুল হাসান বলেন, যে কোনো বই প্রকাশ, একই সাথে আনন্দ ও বেদনার। এতে প্রসব বেদনা থেকে মুক্তি ও একইসাথে একটি শূন্যতা আর সাময়িক উচ্ছ্বাস কাজ করে। আবার সাময়িক এক ধরনের অপূর্ণতা-শঙ্কা মাথা চাড়া দেয়। তবে, এ বইটি আমার জন্য এক ক্রান্তিকালের ফসল। আমার বাতাসের বাইনোকুলার কবিতার বইটি বেরিয়েছিল ২০১০ সালে। কিছুটা র’ ও শ্লীল-অশ্লীলতার মানদণ্ডের বাইরে নিউক্লিয়াসবিহীন বহুমাত্রিক কবিতা লেখার চেষ্টা ছিল তখন, ছিল ঔদ্ধত্য, সেই ভাষা নীরিক্ষা মোটামুটি একটি পরণতি পায় (অন্তত আমি তা-ই মনে করি) আমার তৃতীয় কবিতাগ্রন্থ ‘ইরাশা ভাষার জলমুক’-এ।  

‘২০১৬ সালে সেই বইটি বের হওয়ার পর আমি সময় নিয়েছি, যাতে নতুন একটি ভাষা কাঠামোতে ঢুকতে পারি, একটু অন্যরকম করে বলতে পারি। সেই চেষ্টার ফসলই এবারের বই- লালপীড়িত। এ বইটি যেন লাল-সময়ের আখ্যান, নিষ্ঠুর নিয়তি সত্ত্বেও সেই লাল ও লালসা থেকে মুক্তির আশা-ক্ষোভ, পলায়ন অথবা ভ্রমণ। এই বার্তা বহনে আমি ভাষার দিকে সহজ হওয়ার চেষ্টা করেছি, কিন্তু সস্তা হতে চাইনি। বাকিটা পাঠক বলবেন। ’ 

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২০  
এইচজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa