ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

শিল্প-সাহিত্য

কথা ও গানে আব্দুল হালিম বয়াতি স্মরণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৫৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩১, ২০১৯
কথা ও গানে আব্দুল হালিম বয়াতি স্মরণ

ঢাকা: এদেশে সারিন্দার প্রবর্তক আব্দুল হালিম বয়াতি। তার হাত ধরেই আবহমান বাংলার সংস্কৃতিতে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে সারিন্দা। জনপ্রিয় এই বাদ্যযন্ত্রের প্রবর্তক ১৯৫৭ সালে বাংলাদেশ বেতারের প্রথম লাইভ অনুষ্ঠানে প্রথমবারের মতো সারিন্দা বাজিয়ে শ্রোতাদের বিমোহিত করেন। গুণী এই বয়াতি ও গীতিকারের ৯০তম জন্মবার্ষিকীতে কথামালা ও গানে গানে স্মরণ করেছে তারই শিষ্যরা।

শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে বুধবার (৩০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় একাডেমির সঙ্গীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় এই আয়োজন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই দলীয়ভাবে সারিন্দা বাজিয়ে শোনান আব্দুল হালিম বয়াতি সঙ্গীত একাডেমির শিল্পীরা।

এরপর মরমী এই সাধক রচিত ও সুরারোপিত গানে গানে পুরো মিলনায়তনে সুরের মূর্ছনা ছড়িয়ে দেন শিল্পীরা।

অনুষ্ঠানে সৈয়দ আশিকুর রহমান গেয়ে শোনান ‘আমি এই দেখিলাম সোনার ছবি, হালিমা পারভীন পরিবেশন করেন ‘মজনুর মতো প্রেমিক হলে’ ও ‘প্রাণের প্রিয়তমকে দেখি নাচে তালে তালে, লাল মিয়া বয়াতির কণ্ঠে গীত হয় মুর্শিদ রূপে সাঁই বিরাজ করতেছে, অনিমা মুক্তি গোমেজ গেয়ে শোনান ভালোবেসে কি ফল হবে চোখে না দেখিলে, মাহফুজা মান্না মনি পরিবেশন করেন আমাকে আপন করে লও ইত্যাদি।

এছাড়া একক কণ্ঠে আরও সঙ্গীত পরিবেশন করেন বিমান চন্দ্র বিশ্বাস, খগেন্দ্র নাথ সরকার, দেলোয়ার হোসেন বয়াতি, বাবুল সরকার, সোনিয়া আক্তার, দুলাল বয়াতি প্রমুখ।

এর আগে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় আব্দুল হালিম বয়াতির জীবন ও কর্ম নিয়ে বক্তৃতা করেন কবি কাজী রোজী, লোক গবেষক শফিকুর রহমান, গীতিকার হাসান মতিউর রহমান, মনোয়ার হোসেন খান প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০১৯
ডিএন/এইচএডি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।