ঢাকা, বুধবার, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ০৮ জুলাই ২০২০, ১৬ জিলকদ ১৪৪১

শিল্প-সাহিত্য

ছোটকাগজ ‘ধানসিড়ি’র অষ্টম সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-২৬-১০ ১০:২৯:০০ পিএম
ছোটকাগজ ‘ধানসিড়ি’র অষ্টম সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান। ছবি: বাংলানিউজ

বরিশাল: জীবনানন্দ পুরস্কার-২০১৯ উপলক্ষে প্রকাশিত ছোটকাগজ ‘ধানসিড়ি’র অষ্টম সংখ্যার মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে।

শনিবার (২৬ অক্টোবর) বিকেলে বরিশাল নগরের রায় রোডে খেয়ালী থিয়েটারের কর্মবীর আবদুল খালেক খান গণপাঠাগারে ‘জীবনানন্দ পুরস্কার-২০১৯’ প্রদান অনুষ্ঠানে ‘ধানসিড়ি’র মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

বরাবরের মতো ‘ধানসিড়ি’র এবারের সংখ্যাও সাজানো হয়েছে দেশি-বিদেশি চারজন সাহিত্যিকের সাহিত্যকর্মের ওপর বীক্ষণাত্মক প্রবন্ধমালা দিয়ে।

বাকি দু’জনের মধ্যে ক্লাসিক সাহিত্যিক হিসেবে নির্বাচিতজন হলেন কবি আহসান হাবীব, আর আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে নির্বাচিতজন হলেন কথাসাহিত্যিক গাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেজ।

আড্ডা ধানসিড়ির আয়োজনে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু তুলনামূলক সাহিত্য ও সংস্কৃতি ইনস্টিটিউটের পরিচালক কবি শামীম রেজা। বিশেষ অতিথি ছিলেন পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. নিখিলেশ রায়।

মোড়ক উন্মোচনের পর জুয়েল মাজহার ও আবদুল মান্নান সরকারের হাতে পুরস্কারের অর্থমূল্য ও সম্মাননাপত্র তুলে দেওয়া হয়।

কবি জুয়েল মাজহার ১৯৬২ সালে নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি বর্তমানে অনলাইন নিউজপোর্টাল বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমের সম্পাদক। তার প্রকাশিত কাব্য- দর্জি ঘরে একরাত, মেগাস্থিনিসের হাসি, দিওয়ানা জিকির এবং অনুবাদ বই- ‘কবিতার ট্রান্সট্রোমার’ ও ‘দূরের হাওয়া’।

কথাসাহিত্যিক আব্দুল মান্নান সরকারের জন্ম ১৯৫২ সালে পাবনার বেড়া উপজেলায়। পেশা অধ্যাপনা। তার প্রকাশিত উপন্যাস- ‘পাথার’, ‘যাত্রাকাল’, ‘কৃষ্ণপক্ষ’, ‘নয়াবসত’, ‘পিতিপুরুষ’, ‘আরশিনগর’ ও ‘জনক’ এবং গল্পগ্রন্থ- ‘নিরাকের কাল’, ‘দুই দিগন্তের যাত্রী’ ও ‘নীল পাথরের বিষ’।

এর আগে সকালে ‘জীবনানন্দ পুরস্কার-২০১৯’ প্রদান অনুষ্ঠানের দুই পর্বের প্রথমার্ধের আয়োজন হয়। ‘ক‌বিতার আসর’ শিরোনামে স্বরচিত ক‌বিতা পাঠ ও আড্ডার ওই আয়োজন শুরু হয় সকাল ১০টার দিকে। শেষ হয় দুপুর সাড়ে ১২টায়।

তখন স্ব‌রচিত ক‌বিতা পাঠ করেন- কথাসা‌হিত্যিক আব্দুল মান্নান সরকার, ক‌বি জুয়েল মাজহার, জীবনানন্দ পুরস্কার ২০১৯-এর আহ্বায়ক ড. মুহম্মদ মুহসিন, ক‌বি শামীম রেজা, পশ্চিমবঙ্গের উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. নিখিলেশ রায়, সন্তোষ সিংহ, ‘দূর্বা’ সম্পাদক গাজী ল‌তিফ, নালন্দালোকের সম্পাদক সৈয়দ সগীর উ‌দ্দিন আহমেদ, ক‌বি আসমা চৌধুরী, ‌বিশ্বসা‌হিত্য কেন্দ্র ব‌রিশালের সমন্বয়ক বাহাউ‌দ্দিন গোলাপ, রাজশাহী বিশ্ব‌বিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও ক‌বি মোস্তফা তা‌রিকুল আহসান, ক‌বি দুলাল সরকার, জাতীয় ক‌বিতা প‌রিষদ গোপালগঞ্জ শাখার সাধারণ সম্পাদক রবীন্দ্রনাথ অ‌ধিকারী, কবি হিজল জোবায়ের, মি‌ছিল খন্দকার, মাহমুদ মিটুল, সৈয়দ মেহেদী হাসান, চঞ্চল বাশার প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০১৯
এমএস/এইচএডি/এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa