[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ আষাঢ় ১৪২৫, ১৯ জুন ২০১৮

bangla news

‘সেলফোন-পথচারী’ রোধে চীনে আলাদা লেন!

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-০৯ ১২:০২:২৪ পিএম
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

চীনাদের সেলফোন আসক্তির কথা কারো অজানা নয়। চলতে-ফিরতে সবখানে তাদের চোখ আটকে থাকে সেলফোনের পর্দায়। এমনকি হাঁটার সময়ও দেখা যায়, তারা টেক্সট করছেন অথবা ভিডিও দেখছেন। সবসময় সেলফোন হাতে মাথা গুঁজে থাকার কারণে বিশ্ববাসী মজা করে চীনাদের নাম দিয়েছে, হেড ডাউন ট্রাইব। অনেকে আবার বলেন, সেলফোন-পথচারী।

হাঁটার সময় সেলফোন ব্যবহারের ফলে নানা সমস্যায় পড়তে হয় চীনাদের। কখনও গাড়ির সঙ্গে লেগে যায় ধাক্কা, কাঁদায় পিছলে যায় পা, সাবওয়ে স্টেশনের প্রবেশ মুখে সৃষ্টি হয় জটলা, অথবা সিঁড়িতে হোঁচট খেয়ে পড়তে হয় উল্টে। এভাবে মৃত্যুও হয়েছে অনেকের। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা চীনাদের এই আচরণের নাম দিয়েছে ‘বিভ্রান্তিময় হাঁটা’। আর বিষয়টি নিয়ে উদ্বিগ্ন চীনের স্বাস্থ্য বিভাগ। 

এই সমস্যা সমাধানের একটি ভিন্নধর্মী উপায় অবলম্বন করেছে চীনের ঝিয়ান শহরের একটি শপিংমল। হাঁটার সময়ও সেলফোনের পর্দা থেকে যাদের পক্ষে চোখ সরানো অসম্ভব তাদের জন্য সেখানে চালু হয়েছে আলাদা লেন। শপিংমলের সামনের ফুটপাথের একাংশে করা হয়েছে উজ্জ্বল রং। সেলফোনে মাথা গুঁজে নিশ্চিন্তে হাঁটা যাবে সেখান দিয়ে। 

বাইরুই প্লাজা নামের ওই শপিংমলের মুখপাত্র কাও হানজিয়া বলেন, আমরা পথচারীদের সেলফোন ব্যবহারে উৎসাহ দেওয়ার প্রচেষ্টা করছি না। কিন্তু হাঁটার সময় সেলফোন ব্যবহার না করার জন্য কাউকে বাধ্যও করতে পারি না আমরা। বরং এই লেনের মাধ্যমে সেলফোন-পথচারীদের নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। 

তিনি জানান, সেলফোন-পথচারীর লেনে বিভিন্নধরনের সতর্কতামূলক বার্তা লিখে রাখা রয়েছে। যেমন- ‘দয়াকরে আপনার বাকি জীবনটা মাথা নিচু করে কাটাবেন না’। আরেক জায়গায় লিখা- ‘মাথা নিচু করে হাঁটাদের জন্য বিশেষ লেন’।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে প্রতি বছর চীনে ৬৮ হাজার পথচারীর মৃত্যু হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪২ ঘণ্টা, জুন ০৯, ২০১৮
এনএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa