[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৭ নভেম্বর ২০১৭

bangla news

মিয়ানমারের নিন্দা, বাংলাদেশের প্রশংসা হোয়াইট হাউজের

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৯-১৩ ৩:০৩:৪৮ পিএম
সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে ঢুকছে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ঢল ; ছবি দীপু মালাকার

সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে ঢুকছে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ঢল ; ছবি দীপু মালাকার

ঢাকা: মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা অধিবাসীদের উপর সেদেশের নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক চলমান গণহত্যা ও নির্মম নির্যাতনের নিন্দা জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের কার্যালয় হোয়াইট হাউজ।

পাশাপাশি বিপুলসংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আশ্রয় দান ও তাদের মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য বাংলাদেশ সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেছে হোয়াইট হাউজ।

বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) মিয়ানমারের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর উপর চলমান সহিংসতার বিষয়ে এক বিবৃতিতে মিয়ানমারের নিন্দা ও বাংলাদেশের এই প্রশংসা করেন হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স।

বাংলাদেশ মার্কিন দূতাবাসের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত এক বিবৃতিতে সারাহ স্যান্ডার্স বলেন, বার্মার (মিয়ানমারকে যুক্তরাষ্ট্র এখনও তার পুরোনো নাম বার্মা হিসেবে অভিহিত করে) উত্তরাঞ্চলে রাখাইন রাজ্যে চলমান সঙ্কটে যুক্তরাষ্ট্র গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। সেখানে কমপক্ষে তিন লাখ মানুষ বাসস্থান ছেড়ে পালিয়ে গেছে। আমরা এসব সহিংসতা ও হামলার আবারো নিন্দা জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা নৃগোষ্ঠী ও অন্যান্য সংখ্যালঘু মানুষের ব্যাপকহারে আবাসস্থল থেকে উচ্ছেদ হওয়া ও তাদের উপর নির্যাতন এটাই প্রমাণ করে যে বার্মার নিরাপত্তা বাহিনীগুলো বেসামরিক মানুষদের রক্ষা করছে না। নিরাপত্তা বাহিনী এবং তাদের নির্দেশে কাজ করা বেসামরিক নাগরিকদের দ্বারা, সংগঠিত বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, গ্রাম পুড়িয়ে দেয়া, গণহারে হত্যাকাণ্ড ও ধর্ষণের মত মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে আমরা শঙ্কিত। আমরা বার্মার কর্তৃপক্ষের প্রতি আইনের শাসনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে, সহিংসতা বন্ধ করতে এবং কোনো সম্প্রদায়ের বেসামরিক জনগণকে তাদের বাসস্থান থেকে উচ্ছেদ না করার আহ্বান জানাই। আমরা আক্রান্ত এলাকায় গণমাধ্যমকে প্রবেশের অনুমতি দিতে সরকারকে অনুরোধ করছি।

তিনি বলেন, সহিংসতার কারণে উচ্ছেদ হওয়া রোহিঙ্গাদের বেশিরভাগই প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে পালিয়ে গেছে এবং আমরা বাংলাদেশ সরকারের মানবিক সহায়তা প্রদানের উল্লেখযোগ্য এই উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৭
আরআই

অন্তর্ভুক্ত বিষয়ঃ রোহিঙ্গা

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

FROM AROUND THE WEB
Loading...
Alexa