ঢাকা, শনিবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আগরতলা

ত্রিপুরায় রাজ্যসভা আসনে উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২
ত্রিপুরায় রাজ্যসভা আসনে উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে

আগরতলা (ত্রিপুরা): ভারতের পার্লাামেন্টের উচ্চ কক্ষ রাজ্যসভায় ত্রিপুরা থেকে একটি মাত্র আসন রয়েছে। এই আসনের উপ-নির্বাচনের জন্য ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া চলছে।

 

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় বেলা ১০টা থেকে রাজধানী আগরতলা ক্যাপিটাল কমপ্লেক্স এলাকার বিধানসভা ভবনে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু হয়। একে একে ভোট দেন রাজ্যসভার সদ্য সাবেক সংসদ সদস্য তথা বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. মানিক সাহা, রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী তথা এই উপনির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী বিপ্লব কুমার দেব, সাবেক মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্তমানে বিরোধী দলনেতা মানিক সরকারসহ অন্যান্য মন্ত্রী ও বিধায়করা।  

বিরোধী সিপিআইএম দলের বিধায়ক তথা রাজ্যসভার এই উপনির্বাচনে বামফ্রন্ট প্রার্থী ভানু লাল সাহাও নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।
 
ভোট প্রয়োগ করে বেরিয়ে আসার সময় মুখ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. মানিক সাহার প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভোট দিয়ে খুব ভালো লাগছে।  

তিনি জানান, বিজেপি নেতৃত্ব যখন যে দায়িত্ব দেয় তা তারা সবাই খুব গুরুত্বের সঙ্গে পালন করেন। কিছুদিন আগে রাজ্যসভার নির্বাচনে সবাই তাকে ভোট দিয়েছিল। এখন তিনি দলের অন্য এক প্রার্থীকে ভোট দিচ্ছেন।  

সেই সঙ্গে তিনি বলেন, বিজেপি বিধায়কদের পাশাপাশি আইপিএফটি দলের বিধায়করাও বিজেপি মনোনীত প্রার্থীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন।

অপরদিকে ভোট দিয়ে বেরিয়ে আসার সময় এই উপনির্বাচনের বিজেপি প্রার্থী বিপ্লব কুমার দেব বলেন, দল থেকে তাকে যখন যে দায়িত্ব দেওয়া হয় তা তিনি নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করে আসছেন। এবারও তার ব্যতিক্রম হবে না।  

অন্যান্য বিধায়কদের পাশাপাশি দিন সাবেক মুখ্যমন্ত্রী তথা বর্তমান বিরোধীদল নেতা মানিক সরকারও নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। বেরিয়ে আসার সময় নিজের অভিমত ব্যক্ত করতে গিয়ে মানিক সরকার বলেন, গত ৫২ মাসের মধ্যে নিরাপদে বিধানসভা ভবনের ভেতর দুইবার ভোট দিতে পেরেছেন। ২০১৮ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর এ রাজ্যে ভোট হয়নি বলে তার দাবি।  

তবে রাজ্য বিধানসভার কংগ্রেসের একমাত্র বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন রাজ্যসভার এই উপনির্বাচনে ভোটদান থেকে বিরত থাকেন। বিকেল ৫টার পর হবে ভোট গণনা।  

ত্রিপুরা বিধানসভায় সদস্য সংখ্যা ৬০ জন হলেও, এবার এই নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ৫৯ জন। কারণ দুদিন আগে বিধানসভার সদস্য বৃষকেতু দেববর্মার বিধায়ক বাতিল ঘোষণা করেছেন স্পিকার।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২২
এসসিএন/এসএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa