ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৫ জুন ২০২১, ০৪ জিলকদ ১৪৪২

আগরতলা

ত্রিপুরায় আর্থিক সংকট তীব্রতর হচ্ছে: গৌতম দাস

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৩, ২০২০
ত্রিপুরায় আর্থিক সংকট তীব্রতর হচ্ছে: গৌতম দাস সংবাদ সম্মেলন

আগরতলা (ত্রিপুরা): আর্থিক সঙ্কটে জর্জরিত হয়ে গত দুই মাসে ত্রিপুরা রাজ্যের উত্তর জেলার ধর্মনগরে ৮ জন আত্মহত্যা করেছেন।

এই অভিযোগ রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল সিপিআই (এম)-এর ত্রিপুরা রাজ্য কমিটির সম্পাদক গৌতম দাসের।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) আগরতলার সিপিআইএম ত্রিপুরা রাজ্য কমিটির অফিসে এক সংবাদ সম্মেলন ডেকে এই অভিযোগ করেন তিনি।

তিনি বলেন, সামগ্রীক ভাবে ত্রিপুরার পরিস্থিতি খুব খারাপ, আইন শৃঙ্খলা ও অর্থনৈতিক সব দিক দিয়ে। রাজ্যের পাহাড় ও গ্রামীণ এলাকায় প্রচণ্ড অভাব চলছে। অথচ ২০১৮ সালের ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচনের আগে ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রাজ্যে এসে একাধিক জনসভা করেন। সেখানে তিনি ঢালাওভাবে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় এলে সাধারণ মানুষের আর্থিক অবস্থার ব্যাপক উন্নতি হবে। কিন্তু বাস্তবে তার উল্টোটাই চলছে রাজ্যের মানুষের আর্থিক অবস্থা দিন দিন আরও খারাপ হচ্ছে।

‘এমন অবস্থা হয়েছে যে ঋণ করে মানুষ পরিবার পালনের চেষ্টা করছেন। অর্থনৈতিক সঙ্কটের কারণে রাজ্যের ৫০ শতাংশের বেশি মানুষ ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। ত্রিপুরা রাজ্যে বিজেপি-আইপিএফটি সরকার ক্ষমতায় আসার পর আর্থিক মন্দা শুরু হয় এবং করোনা মহামারির কারণে অবস্থা চরমে পৌঁছেছে। নতুন সরকার আসার পর কোনো নীতিমালা না মেনে ব্যাপক হারে মানুষের সামাজিক ভাতা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ’

সরকারের এসব জনবিরোধী নীতির কারণে সাধারণ মানুষ ধীরে ধীরে প্রতিবাদী হয়ে উঠছে। এটা ভালো লক্ষণ বলেও জানান গৌতম দাস।

এদিন সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন দলের জনজাতি নেতা ও সাবেক মন্ত্রী নরেশ জমাতিয়া।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৩, ২০২০
এসসিএন/এইচএডি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa