bangla news

আগরতলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে খোলা মাঠে বাজার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৪-০১ ৪:১৫:২৬ পিএম
আগরতলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে খোলা মাঠে বাজার।

আগরতলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে খোলা মাঠে বাজার।

আগরতলা (ত্রিপুরা): করোনা ভাইরাসের আতঙ্কের মধ্যে যারা নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী কিনতে বাজারে আসছেন তাদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে এবার বিশেষ পদক্ষেপ নিলো ত্রিপুরা সরকার। বাজারগুলোকে সাময়িক কালের জন্য ভিড় এলাকা থেকে সরিয়ে পার্শ্ববর্তী খোলা মাঠে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বুধবার (১ এপ্রিল) সকাল থেকে পশ্চিম জেলার অন্তর্গত বামুটিয়ার কালীবাজারকে পার্শ্ববর্তী স্কুল মাঠে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বিধায়ক কৃষ্ণধন দাস।

করোনা ভাইরাসের প্রকোপ যতদিন থাকবে ততদিন বাজারটি সাময়িকভাবে স্কুলমাঠে থাকবে বলেও জানান তিনি। রাজধানী আগরতলা লেক চৌমুহনী বাজারকে ইতোমধ্যে পার্শ্ববর্তী আস্তাবল ময়দানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মূলত লেক চৌমুহনী বাজারের সবজি ব্যবসায়ীদের মাঠে স্থানান্তর করা হয়েছে। ব্যবসায়ীদের একজন থেকে আরেকজনকে দেড় মিটার দূরত্ব বজায় রেখে বসানো হয়েছে।

একইভাবে বাজারে আসা লোকদেরও পুলিশ লাইন ধরিয়ে বাজারে প্রবেশ করতে দিচ্ছে। তাদেরও নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে দাঁড় করানো হচ্ছে, যাতে করে কোনোভাবে ক্রেতাদের একজনের সঙ্গে আরেকজনের শারীরিক স্পর্শ না লাগে।

ত্রিপুরা রাজ্যের সমস্ত এলাকার বাজারগুলো এভাবে সাময়িক সময়ের জন্য পার্শ্ববর্তী খোলা জায়গায় নিয়ে যাওয়ার জন্য পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। এর জন্য জায়গাও চিহ্নিত করছে স্থানীয় মহকুমা প্রশাসন। শিক্ষা তথা আইন দফতরের মন্ত্রী রতন লাল নাথ এক বিবৃতিতে একথা জানিয়েছেন।

আস্তাবল ময়দানে বসা সবজি ব্যবসায়ীদের বাজারে স্থানান্তরিত করার বিষয়ে এদিন জিজ্ঞাসা করা হলে তারা জানান, বাজার অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ায় তাদের কোনো সমস্যা হয়নি। মানুষের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে মানুষ বাজারে কম আসছেন, স্বাভাবিকভাবেই ব্যবসা মন্দা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০১, ২০২০
এসসিএন/এফএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আগরতলা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আগরতলা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2020-04-01 16:15:26