bangla news

থানার লকআপে বন্দি মৃত্যু: উত্তপ্ত ত্রিপুরার রাজনীতি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-১৩ ৫:৩১:৩২ এএম
ছবি: বাংলানিউজ

ছবি: বাংলানিউজ

আগরতলা (ত্রিপুরা):  ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানীর পশ্চিম আগরতলা থানার লকআপে বন্দি মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি। মৃত বন্দির নাম সুশান্ত ঘোষ(৩৮)। তার বাড়ি রাজধানীর পার্শ্ববর্তী লঙ্কামুরা এলাকায়। মানুষের এটিএম কার্ড জালিয়াতি করে ব্যাংক থেকে অর্থ লুটে নেওয়ার অভিযোগে দুদিন আগে তাকে ত্রিপুরা পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ গ্রেফতার করেছিল।

রোববার (১২ জানুয়ারি) সকালে থানা লকআপের টয়লেটে তার ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পায় পুলিশ। এরপর মৃতদেহ আগরতলা সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। মৃতের বাবা পরিমল ঘোষ'র দাবি, তার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে খুন করে ঝুলিয়ে রেখেছে পুলিশ। তিনি নিজে পশ্চিম আগরতলা থানায় ছেলেকে খুন করা হয়েছে বলে পুলিশের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এই ঘটনার খবর শুনে ত্রিপুরা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, যদি এই ঘটনায় কাউকে দোষী পাওয়া যায়, তবে তাকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে।

এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই রাজনীতির ময়দানে নেমে পড়েছে বিরোধীদলের সদস্যরা। এদিন সন্ধ্যায় কংগ্রেস সমর্থিত ছাত্র সংগঠন এনএসইউআই এবং যুব কংগ্রেসের প্রতিনিধি দল পশ্চিম আগরতলা থানায় গিয়ে ডেপুটেশন প্রদান করেন ও এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানান। 

এ প্রসঙ্গে এনএসইউআই এর ত্রিপুরা প্রদেশ কমিটির সহ-সভাপতি সম্রাট রায় সংবাদমাধ্যমের কাছে দাবি জানান, পশ্চিম আগরতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ও সি) সুব্রত চক্রবর্তী কে যেন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। কারণ তার অধীনেই রয়েছে গোটা থানার দায়িত্ব। তার দায়িত্বের গাফিলতির জন্য এই ঘটনা ঘটেছে। 

তবে এই ঘটনাকে ঘিরে ওসি সুব্রত চক্রবর্তীর মধ্যে তেমন কোনো হেলদোল লক্ষ্য করা যায়নি।
অপরদিকে এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবিতে সিপিআই (এম) দল'র তরফেও এদিন সন্ধ্যায় রাজধানীর সিটি সেন্টারের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয়। এই বিক্ষোভ থেকে তীব্র ভাষায় ত্রিপুরা সরকারের সমালোচনা করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০৫৩০ ঘন্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০২০
এসসিএন/এমএইচএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-13 05:31:32